*প্রিয়দের প্রিয়-সেরাদের সেরা কর্মী অধ্যাপক অপু উকিল*

Print

মাঈন উদ্দিন সরকার রয়েলঃ  যে কোন নির্বাচনে সবাই সেরা কর্মী বা প্রধান এজেন্ট হতে পারেন না । যে বা যারা সেরাদের সেরা হওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করেন, তাদের মধ্য বিশেষ কিছু গুণ নিশ্চয়ই রয়েছে।  আর যিনি সেরা কর্মী হন -তার সুষ্ঠু সমন্বয়েই সকল কর্মীরাই প্রাণবন্ত থাকে সবসময় । এক সময়ে প্রধান কর্মী উৎসাহ অনূপ্রেরণায় সকলেই সেরা কর্মী হয়ে ওঠেন । তেমনি আমার দৃষ্টি কোণ থেক একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকালীন সময়ে নেত্রকোনা-৩ আসনে নৌকা প্রতীকের বিজয়ী প্রার্থী অসীম কুমার উকিলের প্রিয় সহধর্মিনী বাংলাদেশ যুব মহিলালীগের সাধারণ সম্পাদক,সংরক্ষিত আসনের সাবেক সংসদ সদস্য অধ্যাপক অপু উকিল  প্রিয়দের প্রিয় ও সেরাদের সেরা কর্মী । তার নিরলস পরিশ্রম ও ঐকান্তি প্রচেষ্ঠা বিজয়ী প্রার্থীসহ দলীয় সকল নেতাকর্মীদের যুগিয়েছে উৎসাহ । দিয়েছে অনুপ্রেরণা । নব উদ্যমে সকলেই কাজ করেছেন । অর্জিত হয়েছে সর্বোচ্চ ভোটের ব্যবধানে বিজয় । আনন্দের হাসি হেসেছেন সকলেই একসাথে । সকলের মুখে ফুটে উঠেছে নির্বাচনের প্রধান এজন্ট সেরাদের সেরা কর্মী অধ্যাপক অপু উকিলের প্রশংসা । স্বামীর বিজয়ের লক্ষ্যে স্ত্রীর নিঃস্বার্থ ত্যাগ ও এমন নিরলস পরিশ্রম গভীর থেতে গভীরতর ভালবাসার এক অনন্য উদাহরণ । বিজয়ী প্রার্থী অসীম কুমার উকিল কেন্দুয়া-আটপাড়ায় যেভাবে দিনরাত পরিশ্রম করেছেন , ছুটেছেন এক প্রান্ত থেকে অন প্রান্তে,প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রতিটি এলাকায়,গ্রাম থেকে গ্রামান্তরের প্রতিটি ভোটারের দ্বারে দ্বারে ,ঠিক তেমনি তার স্ত্রী অধ্যাপক অপু উকিলও কাজ করেছেন একইভাবে ।

স্বামীর বিজয়ের জন্য সব কাজের পরিকল্পনা প্রস্তুত থেকে শুরু করে বাস্তবায়ন, সব কাজের তালিকা প্রস্তুত করা, উদ্দেশ্য স্থির করে সাবধান ও সচেতনার সাথে সকল দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে অগ্রসর হয়ে ছিনিয়ে এনেছেন কাংখিত বিজয় ।   ব্যক্তিগত জীবনকে উপেক্ষা করে চারদিকে কি ঘটছে? কি হচ্ছে?  এবং কাজে কোনো ভুল হচ্ছে কিনা ইত্যাদিতে সুক্ষ দৃষ্টি রেখেছেন সবসময় । অসীম-অপু দম্পতি বিশেষ প্রয়োজনে যেকোনো কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ার মানসিক প্রস্তুতি তাদের রয়েছে। আবার তালিকার কোনো কাজ স্থগিত হয়ে গেলে ওই সময়টি কিভাবে কাজে লাগানো যায় সে সম্পর্কেও সচেতন থেকেছেন তারা।

কিভাবে দ্রুত সকল নেতাকর্মীদের কাজে লাগানো যায় .সকল ভোটারদের মনজয় করা যায় –তা নিয়ে সব সময় ব্যতিব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন তিনি । শেষ পর্যন্ত  সফল হয়েছেন । অধ্যাপক অপু উকিল ভালো করে জানেন-রাজনীতি ও কর্মক্ষেত্রে মানুষই বিচরণ করে। কাজেই এখানে আবেগের লেন-দেন রয়েছে। তাই কোনো ভুল হলে  উত্তেজিত হয়ে কর্মীর ওপর ক্ষোভ ঝারলে: প্রতিক্রিয়ায় কর্মীও আবেগপ্রবণ হতে পারেন। তাইতো্ তিনি  সব সময় মাথা ঠাণ্ডা রেখে সকলকে দিয়েছেন উৎসাহ অনুপ্রেরণা । ফলে অনেকের ভুল হলেও দ্রুত তা শুধরে নিতে সক্ষম হয়েছেন সকলেই ।

নির্বাচনকালীন সময়ে ক্রমাগত চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়ে তবে বাস্তবতা যত কঠিনই হোক না কেন?   সমস্যার সম্মুখীন  নিখুঁত ভাবে প্রতিটি সমস্যার করেছেন সমাধান । পরিস্থিতি এবং অবস্থা বুঝে নিয়েছেন ব্যবস্থা । কেন্দুয়া-আটপাড়ার প্রতিটি নেতাকর্মী ও প্রতিটি মানুষের সাথে গড়ে তুলেছেন  সুন্দর সু-সম্পর্ক তাই অধ্যাপক অপু উকিল তার ভক্তদের সাথে নিয়ে সবার আগে অনায়াসে এগিয়ে অর্জন করেছেন স্বামীর বিজয়   ।

স্বামীর বিজয়ে অধ্যাপক অপু উকিল যেমন গর্বিত। তেমনি  অসীম কুমার উকিলকে বিজয়ী করতে পেরে প্রতিটি নেতাকর্মীসহ কেন্দুয়া-আটপাড়ার প্রতিটি মানুষও আজ গর্বিত । আগামীদিনের প্রতিটি মানুষের প্রত্যাশা্ ও প্রাপ্তির মিলন ঘটাতে উন্নয়নে মহাসড়কে সকলকে টেনে নিতে অসীম-অপু দম্পতি ব্যাপক থেকে ব্যাপকতর ভূমিকা রাখবে এমটাই সকলের প্রত্যাশা । তাদের সকল গুণের প্রতিফলন তারা স্বমহিমায় উজ্জ্বল থেকে উজ্জ্বলতর হয়ে ওঠবেন । নিজেদের দক্ষতাকে প্রতিদিন ঝালিয়ে প্রতিফলনের মাধ্যমে নিজেদের আরো বেশি কেন্দুয়া-আটপাড়ার প্রতিটি মানুষের হৃদয়ে অধিক যোগ্য করে তুলবেন-এমন শুভ কামনায় অসীম-অপু দম্পতিকে জানাই বিজয়ের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দনসহ নতুন বছরের শুভেচ্ছা ।

*

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 97 বার)


Print
bdsaradin24.com