ফুলপুরে লোকালয়ে ২টি বাঘ, এলাকায় আতংক, প্রশাসনের মাইকিং

Print


মোঃ খলিলুর রহমান,বিশেষ প্রতিনিধিঃ
ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার সাহাপুর গ্রামে বুধবার লোকালয়ে আসা ২টি বাঘের সন্ধান পাওয়া যায়। পুলিশ প্রশাসন ও স্থানীয় লোকজন বাঘ ২ টি ধরতে পারেনি। তাড়া খেয়ে গর্তে লুকিয়েছে বাঘ দুটি। বাঘ ধরা না পড়ায় আতংকের মাঝে রয়েছে এলাকাবাসী। বাঘ গুলোকে না মারতে এবং তাদের কোন ক্ষতি না করার জন্য স্থানীয়দের আহবান জানিয়ে মাইকিং করছে উপজেলা প্রশাসন।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, ফুলপুর উপজেলার সাহাপুর গ্রামের রমেশ দত্তের বাড়ির   পাশের জঙ্গল থেকে বুধবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে ২টি বাঘ বের হয়ে আসে এবং ৪টি কুকুরকে আক্রমণ করে। তখন কুকুরের শব্দ শুনে বাড়ির লোকজন বের হয়ে তা দেখতে পেয়ে বাঘ দুটিকে মারার জন্য ধাওয়া করে। ধাওয়া খেয়ে বাঘ দুটি দৌড়ে জঙ্গলের দক্ষিণ পাশে একটি গাছের উপর উঠে যায়।কিছুক্ষণ পর সেখান থেকে নেমে বাঘ গুলো জঙ্গলের ভিতর গর্তে লুকিয়ে পড়ে। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে শত শত নারী-পুরুষ তা দেখার জন্য ভীড় জমায়।
সংবাদ পেয়ে ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেবুন নাহার শাম্মী ও ফুলপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং স্থানীয়দের সতর্ক থাকার আহবান জানিয়ে  বাঘ আবার দেখা গেলে প্রশাসনকে জানানোর জন্য বলেন। বাঘ আটক না হওয়ায় পুরো এলাকায় জনগণের মাঝে আতংক বিরাজ করছে। এলাকাবাসীর ধারণা বাঘ আবার বের হয়ে যে কোন সময় মানুষকে আক্রমণ করতে পারে।
ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেবুন নাহার শাম্মী স্থানীয় জনগণকে সতর্ক করে মাইকিং করছেন এবং বাঘের কোন ক্ষতি ও হত্যা না করার জন্য আহবান জানাচ্ছেন।
এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাঘটি আটক করা সম্ভব হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, ভারতের গারো পাহাড় থেকে পথ হারিয়ে বাঘ ২টি লোকালয়ে আসতে পারে।

ফুলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেবুন নাহার শাম্মী ঘটনার সত্যতা নিশ্চত করে বলেন, বাঘ ধরা যায়নি। আমি গিয়ে দেখতে পাইনি। ডিসি স্যারের নির্দেশনা আছে বাঘ  মারা যাবে না। তবে বাঘ আবার লোকালয়ে আসলে তাদের ধরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দিতে হবে। বাঘ না মারার জন্য ও এলাকাবাসীকে সতর্ক থাকার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 169 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com