ফেসবুক অ্যাকাউন্ট হ্যাক হওয়ার আগে-পরে যা করবেন

Print

দীর্ঘদিন ধরেই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করছেন আপনি। এই অ্যাকাউন্ট থেকে আপনার পরিচিতজন তো বটেই, অপরিচিত অনেকের সঙ্গেও আপনার ভালো যোগাযোগ ও সম্পর্ক গড়ে উঠেছে।

কিন্তু জানেন কী, আপনার অসতর্কতার কারণে অ্যাকাউন্টটি আপনার হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে? হ্যাকার আপনার অ্যাকাউন্ট তার দখলে নিয়ে আপনাকে ব্ল্যাকমেইল করতে পারে, আপনার সম্মান নষ্ট করতে পারে। এর ফলে আপনার সামাজিক মর্যাদা তো বটেই, ব্যক্তি ও পারিবারিক জীবনেও মারাত্মক বিপর্যয় তৈরি হতে পারে।

এ সব কিছুই হতে পারে আপনার একটু বেখেয়াল ও আলসেমির কারণে। আপনার অ্যাকাউন্টটি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নিরাপত্তার দেয়ালে বন্দি না থাকার কারণে।

তাহলে কীভাবে আপনি নিজেকে এবং আপনার অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখবেন?

প্রথম কথা হচ্ছে, আপনার অ্যাকাউন্ট থেকে (মেসেঞ্জারে) এমন কোনো তথ্য অন্য কারও কাছে শেয়ার করবেন না, যেটা আপনার ব্যক্তিগত, পারিবারিক কিংবা কর্মজীবনে বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে। কারণ, অন্তর্জাল দুনিয়ায় আসলে নিরাপত্তা বলতে কিছুই নেই। সাময়িক রক্ষাকবচ আছে মাত্র। এ ক্ষেত্রে অ্যাকাউন্ট হ্যাক হলেও রিকভার হওয়ার আগ পর্যন্ত আপনি কিছুটা নির্ভার থাকতে পারবেন।

এরপরও নিরাপত্তার খাতিরে যে রক্ষাকবচ আপনি ব্যবহার করবেন তা হল :

  • অ্যাকাউন্ট ই-মেইল দিয়ে খোলার চেষ্টা করুন। বিশেষ করে জি-মেইল হলে ভালো হয়। ইয়াহু মেইল হ্যাক হওয়ার আশংকা থেকে যায়। যে মেইল দিয়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলবেন সেই ই-মেইল অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তাও নিশ্চিত করুন। এ ক্ষেত্রে আপনার মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করুন। কারণ হ্যাক হওয়া অ্যাকাউন্ট রিকভার করতে গেলে এই ই-মেইল অ্যাকাউন্টটি দরকার হবে।

  • আপনার নিয়মিত ব্যবহৃত ই-মেইল এড্রেস দিয়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট না খোলাটাই শ্রেয়। এতে করে হ্যাকার আপনার ই-মেইল এড্রেস খুব সহজেই পেয়ে যেতে পারেন। যদি নিয়মিত ব্যবহৃত ই-মেইল দিয়ে অ্যাকাউন্ট খুলে থাকেন তাহলে সেটা পরিবর্তন করে এখনই নতুন একটি ই-মেইল সেট করুন।

  • ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড দেয়ার ক্ষেত্রে সংখ্যা, বর্ণমালা এবং যতিচিহ্ন- সবই ব্যবহার করুন। পাসওয়ার্ড সর্বনিম্ন ১২ ডিজিট দিন।

  • অ্যাকাউন্টের টু-ফ্যাক্টর অথেনটিফিকেশন অন করুন। সেখানে আপনার ব্যবহৃত মোবাইল ফোন নাম্বার ব্যবহার করুন। যদি সম্ভব হয় এমন একটি ফোন নাম্বার ব্যবহার করুন, যার সম্পর্কে খুব কম মানুষই জানেন।

  • ট্রাস্টেড কনট্যাক্ট অপশনটি ব্যবহার করুন। যেখানে আপনার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ও বিশ্বাসযোগ্য ৩ থেকে ৫ জন বন্ধুকে অ্যাড করুন। এর ফলে অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়ে গেলে তাদের মাধ্যমে ফিরে পাওয়ার চেষ্টা করা যেতে পারে।

  • আনরিকগনাইজ লগইন অপশনের নোটিফিকেশন, ম্যাসেঞ্জার ও ই-মেইল তিনটি অপশনই অন করে রাখুন। যাতে করে আপনার অ্যাকাউন্টে কেউ যদি অনুমতি ছাড়া ঢুকে পড়ে তাহলে আপনি তাৎক্ষণিক বার্তা পাবেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 23 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com