বেকিং সোডাবগলের কালো দাগ দূর করতে অনেক ভালো কাজ করে বেকিং সোডা, এতে রয়েছে এন্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদান। যা বগলের কালো দাগ দূর করে। বেকিং সোডার সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। তার পর এই পেস্ট বগলে লাগিয়ে ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে ২-৩ দিন ব্যবহার করুন।

নারকেল তেলবেকিং সোডার মত একই ভাবে নারিকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন, নারিকেল তেলের সাথে বেকিং সোডা মিশিয়ে বগলে মাখতে পারেন। এতে দাগ দূর হওয়ার পাশাপাশি গন্ধ থেকেও মুক্তি মিলবে।

১। আলু

আলুর অ্যাসিডিক উপাদান প্রাকৃতিক ব্লিচিং এর কাজ করে। আলুর রস বগলের কালো স্থানে ম্যাসাজ করে লাগান। এবার ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর কুসুম গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। দ্রুত এবং ভাল ফল পেতে দিনে দুইবার ব্যবহার করুন।

২। বেকিং সোডা

বগলের কালচে দাগ ওঠাতে বেকিং সোডা বেশ কার্যকরী। বেকিং সোডার সাথে সামান্য পানি মিশিয়ে পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রনটি বগলের নিচের ত্বকে ভালো করে ঘষে ১৫ মিনিট রেখে দিন। এরপর ধুয়ে ফেলুন। এভাবে সপ্তাহে কমপক্ষে ৪ বার ব্যবহার করুন। এতে ধীরে ধীরে বগলের কালো দাগ দূর হয়ে যাবে।

৩। স্ক্রার্ব করা

অনেক সময় মৃত চামড়ার কারণে বগলে বিচ্ছিরি কালো দাগ হয়ে যায়। এই মরা চামড়া পরিষ্কার করার জন্য প্রয়োজন নিয়মিত স্ক্রার্ব করা। আধা চা চামচ লবণ, ১/৩ কাপ গোলাপ জল, সামান্য জনসন বেবি পাউডার মিশিয়ে বগলের নিচে কিছুক্ষন ঘষে নিন। ৩০ মিনিট পরে ধুয়ে ফেলুন। এটি নিয়মিত ব্যবহার করুন। লেবুর খোসায় চিনি লাগিয়ে নিন। এবার চিনি সহ লেবুর খোসাটি বগলের ত্বকে ভালো করে ঘষুন। এটি ত্বক থেকে মৃত কোষ দূর করে কালো দাগ দূর করে দেবে।

৪। শসা

আলুর মত শসা কালো দাগ দূর করতে বেশ কার্যকর। শসা পাতলা করে কেটে নিন। এই পাতলা টুকরোটি দাগের স্থানে কিছুক্ষণ ঘষুন। এটি সপ্তাহে এক থেকে দুইবার ব্যবহার করুন। এছাড়া শসার রসের সাথে হলুদের গুঁড়ো এবং লেবুর রস মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে নিতে পারেন। এই প্যাকটি ত্বকে লাগান। ৩০ মিনিট পর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এই প্যাকটি প্রতিদিন একবার ব্যবহার করুন।

৫।লেবুর রস

লেবুর রস শরীরের যেকন দাগ দূর করতে ব্যবহার করা হয়ে থাকে, বগলের ক্ষেত্রেও এটি ভালো কাজ করে। লেবুর সাথে সামান্য চিনি মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

৬।টমেটো

টমেটো প্রাকৃতিক ব্লিচ হিসেবে কাজ করে থাকে। এটির নিয়মিত বগলে ঘসলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

৭।অ্যালোভেরা

আন্ডার আর্ম ওয়াক্স করার পর এলোভেরার জেল লাগাতে পারেন, এটি ব্যবহার করার ফলে ত্বক হবে নরম ও দাগ মুক্ত।