বঙ্গবন্ধু হত্যার যড়যন্ত্রের সাথে আমাদের কিছু লোক সম্পৃক্ত ছিল

Print

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যায় জড়িতদের তথ্য একদিন সামনে আসবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

গতকাল বুধবার বিকেলে চীনের রাজধানী বেইজিং এ একটি হোটেলে প্রবাসী বাংলাদেশীদের আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি। বঙ্গবন্ধু হত্যায় জড়িতদের প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, খুনীদের বিচার করেছি, এটা ঠিক। কিন্তু এর পেছনে যারা ছিল, ষড়যন্ত্রের সাথে কারা জড়িত সেটা কিন্তু এখনো তদন্ত করা হয়নি। আমার মনে হয়, একটা সময় আসবে সেই সত্যগুলোও মানুষের সামনে চলে আসবে। শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা ব্যাহত করেছিল কারা? যারা আমাদের স্বাধীনতা চায়নি, বা মহান মুক্তিযুদ্ধে যারা পাকিস্তানি বাহিনীর দোসর ছিল, যারা চক্রান্ত করেছিল। অত্যন্ত দুঃখের সাথে বলবো, এর সঙ্গে আমাদের নিজেদেরও কিছু লোক সম্পৃক্ত হয়েছিল ক্ষমতার লোভে।

যুদ্ধবিধ্বস্ত জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধুর অবদানের কথা স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ যখন এগিয়ে যাচ্ছে তখন বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে যেত। এ সময় গত ৭০ বছরে চীনের অগ্রগতির কথা উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী। শেখ হাসিনা বলেন, চীন ৭০ বছর উদযাপন করতে যাচ্ছে। এই ৭০ বছরের মধ্যে চীনও কিন্তু একটা দরিদ্র দেশই ছিল। আজকে সেই সারা বিশ্বে অর্থনৈতিক ভাবে সারা বিশ্বে অর্থনৈতিকভাবে দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে। চীনে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এখান থেকে অনেক কিছু শেখার আছে। তাদের ইতিহাস জানা, ধীরে ধীরে তাদের যে উন্নতি। তাদেরও অনেক প্রতিক‚ল পরিবেশের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। এখনো বাধা আছে। এই অঞ্চল বা এশিয়ার কোন দেশ সারা বিশ্বে এক নম্বর অর্থনীতির দেশ হিসেবে গড়ে উঠুক এটা অনেকে চাইবে না। সেই বাধা আমরা দেখি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, যে স্বপ্ন নিয়ে জাতির পিতা দেশ স্বাধীন করেছিলেন, সে স্বপ্ন অর্জন করাই ছিল একমাত্র লক্ষ্য। এটাই আমাদের চেষ্টা কিভাবে বাংলাদেশটাকে গড়ে তুলবো। এমন একটা বাংলাদেশ গড়ে তুলবো যেখানে ক্ষুধা-দারিদ্র থাকবে না।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 25 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com