বসন্তে ঘুরে আসুন শিমুলের রাজ্যে

Print
সাইফুল ইসলাম বিপ্লব
ফুল ফুটুক না ফুটুক আজ বসন্ত…
শীত শেষে বিধবা প্রকৃতি সাজতে শুরু করেছে নতুন রূপে। শিমুলের রক্তলাল ফুল একে দান করেছে বাড়তি সৌন্দর্য। রূপে মুগ্ধ হয়ে পাখিরাও যেন আত্মহারা।  মন স্থির করতে না পেরে ছোটাছুটি করছে এ ডাল থেকে ও ডালে। বলছিলাম সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে অবস্থিত দেশের সর্ববৃহৎ শিমুল বাগানের কথা। জেলাশহর থেকে প্রায় ৩০ কিলোমিটার দূরবর্তী বাদাঘাট ইউনিয়নের মানিগাঁও গ্রামে প্রায় একশো বিঘা জমি জুড়ে এর বিস্তৃতি। সারিসারি বিন্যস্ত গাছে ফুটে থাকা শিমুলের রক্তিম পাপড়ির সৌন্দর্য আর বিহঙ্গের কিচিরমিচির ধ্বনি পর্যটকদের নিয়ে যায় কল্পনার অচিনপুরে। প্রকৃতি যেন তার সমস্ত রূপ ঢেলে দিয়ে মনোরঞ্জন করতে ব্যাকুল। গাছ থেকে ঝরে পড়া অসংখ্য শিমুলের তৈরী লাল গালিচা প্রস্তুত আহূতদের অভ্যর্থনা দিতে।  ঋতু বৈচিত্রের সাথে তাল মিলিয়ে বহুরূপী এ বাগানও সাজে নানান ঢঙ্গে। বর্ষায় একে দেখা যায় গাঢ় সবুজ রঙ্গে, শীতে পাতা ঝরা বৃক্ষগুলো মুমুর্ষু রূপ নেয় আর বসন্ত এলেই গায়ে মাখে টুকটকে লাল রঙ। বাগানের উত্তর দিকে মেঘালয় থেকে পৃথক হওয়া বারিকা টিলা আর পূর্বদিকে  পাহাড়ের বুক চিরে বয়ে আসা স্রোতস্বিনী যাদুকাটা তাকে মোড়িয়ে দিয়েছে তাদের রূপের চাদরে। ভ্রমণপিয়াসীদের জন্য মনে হবে এটি ছোট্র এক টুকরো স্বর্গ।
দেড় যুগ আগে মনোমুগ্ধকর এ শিমুল বাগানের গোড়াপত্তন করেছিলেন সাবেক বাদাঘাট ইউপি চেয়ারম্যান ও তৎকালীন স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যাক্তি প্রয়াত জয়নুল আবেদিন। নিজের ১০০ বিঘা অনাবাদি জমিতে রোপন করেছিলেন হাজার তিনেক শিমুলের চারা৷ কে জানতো তার হাতে রোপিত চারাগুলোই একদিন সৌন্দর্যপ্রেমীদের টেনে আনবে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে। সময়ের ব্যাবধানে সেই চারাগাছ যৌবনে পদার্পন করেছে, রূপ লাবন্য দিয়ে আকৃষ্ট করছে দেশ বিদেশের হাজারো পর্যটকদের।
দেশের সর্ববৃহৎ এ শিমুলবাগানের সৌষ্ঠব পূর্ণ  রূপ অবলোকন করতে হলে আপনাকে প্রথমে যেতে হবে সুনামগঞ্জ শহরে। শহরে অবস্থিত আব্দুজ জহুর সেতু (বৈঠাখালি ব্রীজ) থেকে মোটরসাইকেল কিংবা সিএনজি যোগে লাউড়েরগড়। তারপর  যাদুকাটা নদী পার হলেই কাঙ্ক্ষিত শিমুল বাগান।
এখানে বেড়াতে আসা লোকদের মন্তব্য, অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা আর পর্যটনকেন্দ্র গড়ে না ওঠায় নানা রকম ঝামেলা পোহাতে হয় তাদের । যোগাযোগ ব্যাবস্থা উন্নত হলে এবং পর্যটন কেন্দ্র গড়ে ওঠলে শিমুল বাগান,  যাদুকাটা নদী আর বারিকা টিলা হতে পারে সৌন্দর্যপ্রেমীদের অবকাশ যাপনের কেন্দ্রবিন্দু।
শিক্ষর্থী,  ফার্মেসী বিভাগ,কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 284 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com