বাংলাদেশের জয়ে পয়েন্ট টেবিলে ওলট-পালট

Print

কবিতার বুলিতে ম্যাচের আগেরদিন বাংলাদেশকে ডুবিয়ে দেয়ার হুমকি দিয়েছিলেন আফগানিস্তান অধিনায়ক গুলবাদিন নায়েব। কিন্তু কবিতার ছন্দ যে মাঠে খাটে না সেটা মর্মে মর্মে বুঝিয়ে দিলেন সাকিব আল হাসান। আরব্য রজনীর দৈত্যের মতো এক হানায় গুঁড়িয়ে দিলেন আফগানদের টাইগার বধের স্বপ্ন।
এই জয়ে ৭ ম্যাচে ৩ জয় ৩ পরাজয় এবং এক পরিত্যাক্ত ম্যাচে সর্বমোট ৭ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে ৭ নাম্বারে উঠে গেল বাংলাদেশ, আর সাত ম্যাচের সবকটিতে হেরে একদম তলানিতে ১০ নাম্বারে আছে আফগানিস্তান।

সাকিবের কাব্যিক পারফরম্যান্সে আবারও সেমির স্বপ্ন জেগে উঠল বাংলাদেশের। আফগানদের হারিয়ে শ্রীলঙ্কাকে পেছনে ঠেলে লাল-সবুজরা উঠে গেল পয়েন্ট টেবিলের পাঁচে। সাত ম্যাচে টাইগার পয়েন্ট এখন ৭। শীর্ষে থাকা- নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, ভারত আর ইংল্যান্ড যদি পা পেছলায়, ভারত-পাকিস্তানের বিপক্ষে নিজেদের শেষ দুই ম্যাচে যদি জয় আসে, সেমিফাইনালে পৌঁছে যাওয়া সম্ভব মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার দলের জন্য।
নিজেদের ইনিংসে ব্যাটিংয়ের সময় উইকেটের চেহারা টের পেয়েছে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষের স্পিন আর বড় মাঠের কারণে রান তুলতে হাঁসফাঁস করতে হয়েছে। বল হাতে তাই আফগানদের যেন সেই সময়টাই ফিরিয়ে দিতে চাইল বাংলাদেশ। মাশরাফী-মোস্তাফিজরা শুরুটাও করলেন কিপ্টেভাবে। দেখেশুনে বাংলাদেশকে কোনো উইকেট উপহার না দিয়ে আফগানরা প্রথম ১০ ওভারে তুলে ফেলে ৪৮ রান।
আঁটসাঁট বোলিংয়ে রান আটকানো গেলেও ক্রমেই মাথাচাড়া দিয়ে উঠছিলো আফগানদের উদ্বোধনী জুটি। সেই জুটি ভাঙার জন্য ১১তম ওভারেই নিজের সেরা অস্ত্র সাকিব আল হাসানকে ব্যবহার করলেন মাশরাফী। অধিনায়কের ভরসা রাখতেই নিজের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে মিডউইকেটে রহমত শাহকে ২৪ রানে তামিমের ক্যাচ বানান এবারের বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক।
এরপরই রানের চাকা শ্লথ পড়ে আফগানদের। তারওপর কাঁটা ঘায়ে নুনের ছিটে দিয়ে ২১তম ওভারের পঞ্চম বলে হাসমতউল্লাহ শাহিদিকে(১১) স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলেন মুশফিক-মোসাদ্দেক জুটি।
এরপর অনেকটা ধুঁকতে ধুঁকতেই কোনরকমে একশো পেরোয় আফগানিস্তান। উইকেট স্পিন বান্ধব হয়ে যাওয়ায় রান তুলতে ঘাম ছুটছিলো দুই ব্যাটসম্যান গুলবাদিন নাইব ও আসগর আফগানের। রানরেট পারদের মত চড়তে থাকায় আক্রমণের সিদ্ধান্ত নিলেন দুজনে।
ঠিক সেই মুহুর্তেই দ্বিতীয় স্পেলে সাকিবকে আবারও আক্রমণে আনলেন মাশরাফী। ২৯তম ওভারের এক বলের ব্যবধানে গুলবাদিন ও মোহাম্মদ নবীকে সাজঘরের পথ দেখালেন সাকিব। প্রথম বলেই গুলবাদিনকে(৪৭) শর্ট কাভারে লিটন দাসের কাছে ক্যাচ দিতে বাধ্য করলেন, এক বল বাদে রানের খাতা খোলার সুযোগ না দিয়ে বিপদজনক নবীকে করলেন বোল্ড।
উইকেটের গন্ধ পেয়ে যেন আরও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠলেন সাকিব। তিন ওভার বাদে এবার তার আগুনে পুড়লেন আফগানদের অন্যতম ব্যাটিং ভরসা আসগর আফগান। ৩২তম ওভারের দ্বিতীয় বলে স্লগ সুইপ করতে গিয়ে ২০ রানে বদলি ফিল্ডার সাব্বিরকে ক্যাচ দিয়ে বসেন সাবেক আফগান অধিনায়ক। এর দুই ওভার বাদে উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান ইকরাম আলি খিল লিটন দাসের থ্রোতে রানআউট হলে হার দেখতে থাকে আফগানরা।
সেখান থেকে সামিউল্লাহ সেনওয়ারি ও নাজিবউল্লাহ জাদরানের ৫৬ রানের জুটিতে অসম্ভব কিছু করারই স্বপ্ন দেখছিলো আফগানিস্তান। বাধ্য হয়ে তাই এগিয়ে আসতে হলো সাকিবকেই। আর্ম বলে নাজিবউল্লাহকে(২৩) বোকা বানিয়ে ফাঁদে ফেলেন স্টাম্পিংয়ের।
এই উইকেট দিয়েই আরেক কীর্তি গড়া হয়ে গেলো সাকিবের। প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্বকাপে গড়লেন ৫ উইকেট নেয়ার মাইফলক। যুবরাজ সিংয়ের পর দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ৫০ রান ও ৫ উইকেট নেয়ার কীর্তিও তার!
কোটা শেষে সাকিবের বোলিংয়ের দিকে কেবল তাকিয়েই থাকতে হচ্ছে। পুরো ১০ ওভার বল করেছেন, উইকেট পেয়েছেন ৫টি। সেটিও আবার মাত্র ২৯ রানে! দ্বিতীয় স্পেলে আবার একটি মেডেনও আছে। ম্যাচ শেষে বাংলাদেশের কাছে না হেরে সাকিবের কাছে ম্যাচ হেরেছে আফগানরা, এমন বলটাও খুব একটা অনুচিত কিছু হবে না!
এরপর দ্রুত রশিদ খান ও দৌলত জাদরানকে তুলে নেন মোস্তাফিজ। শেষ উইকেট হিসেবে সাইফউদ্দিনের বলে বোল্ড হন মুজিব উর রহমান। ১৮ বল বাকি থাকতেই ৬১ রানে হেরে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদায় নিশ্চিত হয় আফগানদের।

এর আগে দিনের শুরুতে টস জিতে মাশরাফীদের প্রথমে ব্যাটিংয়ে পাঠান আফগান অধিনায়ক গুলবাদিন নায়েব। একাদশে পরিবর্তনের মতো ওপেনিংয়েও পরিবর্তন এনে লিটন দাস আর তামিম ইকবাল নামেন বাংলাদেশের হয়ে। কিন্তু পঞ্চম ওভারের মধ্যেই লিটনকে ঘরে ফিরতে হয়। ১৭ বলে ১৬ রান করে মুজিবের বলে ক্যাচ আউট হয়ে যান।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 27 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com