বাংলাদেশে অবৈধ বিদেশি ১০ লাখ, রোহিঙ্গা শরণার্থী ১৫ লাখ, বিহারি ৫ লাখ

Print

দেশে দিন দিন বাড়ছে অবৈধ বিদেশির সংখ্যা। রোহিঙ্গা ও বিহারি ছাড়া একটি গোয়েন্দা সংস্থার হিসাবে অবৈধ বিদেশির সংখ্যা মাত্র ২১ হাজার। কিন্তু বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা বলছে, শুধু বিদেশি অবৈধ শ্রমিকের সংখ্যা বাংলাদেশে ১০ লাখ। একাধিক বেসরকারি সংস্থার হিসাব অনুযায়ী, শরণার্থী রোহিঙ্গা, বিহারি এবং অবৈধ বিদেশি মিলিয়ে এ সংখ্যা হবে ৩০ লাখের বেশি। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, নজরদারি অপেক্ষাকৃত কম থাকায় বিদেশিরা পর্যটন ভিসায় এসে পাসপোর্ট ছিঁড়ে ফেলে থেকে যাচ্ছেন বাংলাদেশে।

অন্যদিকে সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার পরিসংখ্যানে এত ফারাক নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেক বিশেষজ্ঞ। তারা বলছেন, অভিবাসীদের সঠিক পরিসখ্যান না থাকলে জাতীয় নিরাপত্তা হুমকির মধ্যে পড়তে পারে। দ্রুততর সময়ের মধ্যে অভিবাসী নিয়ে একটি বিশেষায়িত সংস্থা গঠন করার ব্যাপারে মত দিয়েছেন তারা। অভিবাসন নিয়ে কাজ করেন এমন অনেক বিশ্লেষক বলছেন, দীর্ঘদিন ধরে বিহারিদের যন্ত্রণা সহ্য করছে রাষ্ট্র। এবার যোগ হয়েছে বিশাল রোহিঙ্গা-বহর। অবৈধ বিদেশির সংখ্যা বাড়তে থাকায় চাপে পড়ছে দেশের অর্থনীতিতে। এর বাইরে অবৈধ বিদেশিরা দেশে অবস্থান করে নানা অপকর্মে জড়াচ্ছেন। এর বাইরে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে অবৈধভাবে কাজ করায় বড় অঙ্কের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে রাষ্ট্র।

অপরাধবিজ্ঞানী ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমি যখন সুইজারল্যান্ডে ছিলাম তখন তিন মাস অন্তর অন্তর সেখানকার ইমিগ্রেশন বিভাগ আমার কাছে চিঠি পাঠাত এবং আমাকে তাদের অফিসে ডাকত। বিদেশিদের বিষয়টি মনিটরিংয়ের জন্য আমাদের দেশেও বিশেষায়িত একটি সংস্থা প্রয়োজন। যারা কেবল এ কাজটিই করবে। নয় তো এর দায় রাষ্ট্রকেই নিতে হবে।’

একাধিক সূত্রে জানা গেছে, দেশে ৩০ লাখ বিদেশি বসবাস করছেন। এর মধ্যে ১০ লাখের বেশি বিদেশি শ্রমিক অবৈধভাবে কাজ করছেন বাংলাদেশে। সবচেয়ে বেশি বিদেশি শ্রমিক কাজ করেন পোশাক খাতে। যদিও একটি গোয়েন্দা সংস্থার হিসাব বলছে, অবৈধভাবে দেশে অবস্থান করা বিদেশি নাগরিকের সংখ্যা মাত্র ২০ হাজার ৭১৩ জন। বৈধভাবে দেশে অবস্থান করছেন প্রায় ৬১ হাজার। তবে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) ২০১৫ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রায় ৫ লাখ ভারতীয় নাগরিক বাংলাদেশে কাজ করেন। তারা তাদের দেশে এক বছরে ৩ দশমিক ৭৬ বিলিয়ন ডলার পাঠিয়েছেন, যা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৩০ হাজার কোটি টাকার সমান।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 70 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com