বাহ্রাঘাটে বাসস্ট্যান্ড চাই শিরোনামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে লেখনির ঝড়।

Print

বাহ্রাঘাটে বাসস্ট্যান্ড চাই শিরোনামে সামাজিক যোগাযোগ  মাধ্যম ফেইজবুকে লেখনির ঝড়।

মহিউল ইসলাম পলাশ, দোহার-নবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ বাহ্রাঘাটে বাসস্ট্যান্ড চাই এই দাবিসম্বলিত পোস্টের ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে। ঢাকার দোহার উপজেলার নয়টি ইউনিয়নের মধ্যে নয়াবাড়ি একটি ইউনিয়ন। এই ইউনিয়নটি দোহারের শেষপ্রান্তে অবস্থিত। প্রতিবছর পদ্মার ভাঙ্গনের কবলে পরে মানবেতর জীবন যাপন করে আসছে এই ইউনিয়নবাসী। একেতো পদ্মার ভাঙ্গন আর এক হলো অবহেলিত এই অঞ্চল। এ দুটির কড়াঘাতে জনজীবনে নেমে এসেছে বেদনার রোদ্রদাহ। তবুও আাশায় বুক বেধে সময়ের সাথে পাল্লা দিয়ে সব দূর্দষাকে পায়ে ঠেলে এগিয়ে যাওয়ার স্বপ্ন দেখে এ অঞ্চলের তরুন সমাজ।
সেই স্বপ্ন পূরণের লক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে দাবিসম্বলিত লেখনির ঝড় তুলেছে এ অঞ্চলের তরুন প্রজন্ম। দোহার উপজেলার কয়েকটি বাস সার্ভিস চালু আছে যে গুলো মুটেও যাতায়াত কারার মত পরিবেশ রক্ষা করে না। তার পরেও নয়াবাড়ি ইউনিয়ন বর্তমানে এই বাস সার্ভিস থেকে বঞ্চিত। পূর্বে নয়াবাড়ি ইউনিয়নের বাহ্রাঘাটে বাসস্ট্যান্ড ছিল। কিন্তু প্রায় ১ বছর আগে বাসস্ট্যান্ডটি কুসুমহাটি ইউনিয়নের কার্তিকপুর স্থানান্তর করে নিয়ে আসা হয় যাহার ফলে বিপাকে পরে নয়াবাড়ি ইউনিয়নবাসী। তাই নয়াবাড়ি ইউনিয়নবাসীর প্রানের দাবি জানায়, বাহ্রাঘাটে পূনরায় বাসস্ট্যান্ড চাই।
নয়াবাড়ি ইউনিয়নের স্কুল, কলেজে পড়োয়া ছাত্রছাত্রীর লেখাপড়ার সুবাদে প্রতিনিয়ত উপজেলার প্রাণকেন্দ্র জয়পাড়া আসতে হয়। বাস সার্ভিস না থাকায় তাদের ইজি বাইক বা অটো রিকশায় যাতায়াত করতে হয়। এতে প্রতিজনকে প্রায় প্রতিদিন গুনতে হয় ১০০ শত টাকা। এমনিতেই এ অঞ্চলের মানুষ আর্থিকভাবে দূর্বল তার উপরে প্রতিদিন গুনতে হয় একশত টাকা। এ যেন “মরার উপর খড়ার ঘা”। তাই নবনির্বাচিত এম. পি জনাব সালমান এফ রহমানের ও উপজেলা প্রশাসনের কাছে এ অঞ্চলের মানুষের দাবি, গরীব ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের লেখা পড়া চালিয়ে যাওয়ার সার্থে অনতিবিলম্বে বাহ্রাঘাটে বাসস্ট্যান্ড করে দিতে হবে।
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 190 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com