বিএনপিতে যোগ দেয়ার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান মান্নার

Print

বগুড়া-৬ উপনির্বাচন সামনে রেখে বিএনপিতে যোগ দেয়ার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শীর্ষ নেতা ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাকে। তবে মান্না এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন বলে যুগান্তরকে জানিয়েছেন।

বিএনপির শীর্ষ এক নেতাকে নাগরিক ঐক্যের এই আহ্বায়ক জানিয়েছেন, বিএনপি নয়, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে উপনির্বাচন করার প্রস্তাব পেলে তিনি ভেবে দেখবেন।

বগুড়া-৬ উপনির্বাচনে বিএনপি অংশ নেয়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না দিলেও এতে অংশগ্রহণের সম্ভাবনাই বেশি- এমন আভাস দিয়েছেন দলটির নীতিনির্ধারকরা। সে লক্ষ্যে শুরু হয়েছে প্রার্থী খোঁজার কাজও।

কেন্দ্রীয় না স্থানীয়- কোন পর্যায়ের নেতাকে মনোনয়ন দেয়া হবে, তা নিয়ে দলের ভেতর ও বাইরে চলছে নানা আলোচনা।

দলের দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়, বগুড়ার নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী হতে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাকে প্রস্তাব দিয়েছে বিএনপি। তবে এ ক্ষেত্রে একটি কঠিন শর্তও জুড়ে দেয়া হয়েছে।

সেই শর্তের কারণেই আটকে আছে মনোনয়ন ইস্যুটি। সেই শর্তটি হচ্ছে- মান্না যদি দল (নাগরিক ঐক্য) ত্যাগ করে বিএনপিতে যোগ দেন, তা হলেই তাকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হতে পারে। তার নিজ দল থেকে নির্বাচন করলে বিএনপি এতে সমর্থন দেবে না।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, মান্নাকে বগুড়া-৬ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপি মনোনয়ন দেয়ার ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় মাথায় রেখেছে। প্রথমত মান্না বগুড়ার সন্তান, এখানে তার একটা আলাদা গ্রহণযোগ্যতা আছে।

দ্বিতীয়ত মান্না খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট ও বিএনপি আয়োজিত সভা-সমাবেশগুলোতে ভোকাল। তৃতীয়ত মান্নার একটি রাজনৈতিক ঐতিহ্য আছে, তিনি ডাকসুর সাবেক দুইবারের ভিপি।

চতুর্থত তিনি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। পঞ্চমত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রতি মান্নার সহমর্মিতা আছে। বিশেষ করে ২০১৪ সালের নির্বাচনে আগে বিএনপির টানা অবরোধ চলাকালে আরাফাত রহমান কোকোর মৃত্যুর পর তিনি গুলশান কার্যালয়ে ড. কামাল হোসেনকে নিয়ে গিয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে আসেন।

ষষ্ঠত গত নির্বাচনে তিনি বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে বগুড়া-২ একটি আসন থেকে নির্বাচন করেন। তাই প্রেস্টিজিয়াস এই আসনে মান্নাকে বিবেচনায় রেখেছে বিএনপি।

বিএনপি চাচ্ছে, মাহমুদুর রহমান মান্না বিএনপিতে যোগ দিয়ে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করবে। দলের হাইকমান্ডের পক্ষে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ড যাওয়ার আগে সেই প্রস্তাবও মান্নাকে দিয়েছেন। কিন্তু মান্না তাতে রাজি হননি।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে রোববার দুপুরে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, সপ্তাহখানেক আগে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম তাকে জানান যে, লন্ডন থেকে জানতে চাওয়া হয়েছে, তিনি বগুড়ায় নির্বাচন করবেন কিনা? করলে বিএনপির হয়ে করতে হবে।

মান্না বলেন, তখন আমি জানতে চাই- বিএনপির হয়ে মানে কী, বিএনপিতে যোগ দিয়ে? জবাবে মির্জা ফখরুল সহাস্যে বলেন, এর মানে তো তা–ই হয়।’

মান্না বলেন, বিষয়টি এই পর্যন্তই থেমে আছে। এরপর এ বিষয়ে আমাকে আর কিছু বলা হয়নি। যা কিছু হচ্ছে পত্র-পত্রিকার খবরে।

তা হলে বিএনপিতে যোগ দিয়ে নির্বাচনে অংশ নেবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে মান্না এ প্রতিবেদককে বলেন, আমি একটি দল করছি। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক আমি। আমি দল ছাড়ব না।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 48 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com