বিজিবি’র মামলার পলাতক আসামীর রিমান্ডের ভয় দেখিয়ে এসআই মিজানের ঘুষ বানিজ্য

Print

মোঃ রাসেল ইসলাম,যশোর জেলা প্রতিনিধি: যশোরের বেনাপোল পুটখালী সীমান্ত থেকে গত সোমবার(৮/০৪/১৯ইং) অনুমানিক ১ টার সময় ২১ বিজিবি ধাওয়া দিলে ৩০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল ফেলে পালিয়ে যায় শরিফুল ইসলাম(৩৫)নামে এক মাদক বহনকারী।

বুধবার(১০/০৪/১৯ইং) তারিখ সাড়ে ১২ টার দিকে এসআই মিজান মাদক বহনকারী পলাতক আসামী শরিফুলকে আটক করে বেনাপোল পোর্ট থানায় এনে রিমান্ডের ভয় দেখিয়ে বিপুল অংকের টাকা দাবী করেন। তার কিছুক্ষন পরে এসআই মিজান মাদক বহনকারী শরিফুলের স্ত্রী কহিনুর বেগমের কাছে মুঠো ফোনে কথা বলে টাকা আনতে বলে। তা-নাহলে এসআই মিজান রিমান্ডের ভয় ভীতি দেখান। সেই মোতাবেক শরিফুলের স্ত্রী কহিনুর বেগম নগদ ১৪ হাজার টাকা এসআই মিজানকে দেওয়ার জন্য কাগজ পুকুর বাজারের শ্রমিক টোল ঘরের পিছনে অপেক্ষা করেন। এসআই মিজান কিছুক্ষন পরে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হলে কহিনুর তাকে রিমান্ডের ভয় দেখানো টাকা পরিশোধ করেন। কহিনুর সাংবাদিকদের বলেন, আমার সংসার খুব অভাবের বলার পরেও ওই অসৎ পুলিশ কর্মকর্তা কোনো কথা কর্নপাত করেননি। অনেক কাকুতি মিনুতি করার পর সে যাওয়ার সময় আমার ক্ষুদার্থ সন্তানকে ৫০ টাকা খাওয়ার জন্য দিয়ে যায়।

বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই মিজানের মুঠো ফোনে কথা বললে তিনি ঘটনা অস্বীকার করেন।

এবিষয়ে বেনাপোল পোর্ট থানার ওসি আবু সালেহ মাসুদ করিমের কাছে মুঠো ফোনে কথা বললে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমিতো কিছু জানিনা কিন্তু কি কারনে কেনো এমন করলো আমি না জেনে কিছুই বলতে পারবো না।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 78 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com