বিটিআরসির কৌশল অযৌক্তিক

Print

নিরীক্ষা আপত্তির টাকা আদায়ের ‘কৌশল’ হিসেবে বিটিআরসি মোবাইল ফোন সেবার বিভিন্ন অনুমোদন ও অনাপত্তিপত্র (এনওসি) দেওয়া বন্ধ রাখায় তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে গ্রামীণফোন।

দেশের প্রায় অর্ধেক গ্রাহকের অপারেটর গ্রামীণফোন টেলিকম খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির ওই কৌশলকে বর্ণনা করেছে ‘অযৌক্তিক ও জবরদস্তিমূলক’ হিসেবে।

গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি বৃহস্পতিবার হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে সংবাদ সম্মেলন করে কোম্পানির অবস্থান তুলে ধরেন।

তিনি অভিযোগ করেন, বিটিআরসির এই ‘চরম সিদ্ধান্তটি’ কোনোভাবেই গ্রাহকের স্বার্থ বিবেচনা করে নেওয়া হয়নি; বরং এ সিদ্ধান্তে গ্রাহককে স্বাধীনভাবে সেবা গ্রহণের সুবিধা থেকে ‘বঞ্চিত করা হচ্ছে’।

এ ধরনের পদক্ষেপ নিয়ে বিটিআরসি গ্রাহকের নিরবচ্ছিন্নভাবে মানসম্পন্ন ফোন-কল, ইন্টারনেট ব্রাউজিং ও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ব্যবহারের অধিকারকে ‘খর্ব করছে’ বলেও অভিযোগ করেছে গ্রামীণফোন।

বিটিআরসির দাবি, গ্রামীণফোনের কাছে নিরীক্ষা আপত্তির দাবির ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা এবং আরেক মোবাইল ফোন অপারেটর রবির কাছে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা রয়েছে তাদের।

তাগাদা দেওয়ার পরও ওই টাকা পরিশোধ না করার যুক্তি দেখিয়ে গত ৪ জুলাই গ্রামীণফোনের ব্যান্ডউইথ ক্যাপাসিটি ৩০ শতাংশ এবং রবির ১৫ শতাংশ সীমিত করতে আইআইজিগুলোকে নির্দেশ দেয় বিটিআরসি।

কিন্তু তাতে গ্রাহকের সমস্যা হওয়ায় ১৩ দিনের মাথায় গত ১৬ জুলাই ওই নির্দেশনা প্রত্যাহার করে নেয় বিটিআরসি।

তবে এ সংস্থার চেয়ারম্যান জহুরুল হক সেদিনই জানিয়ে দেন, টাকা না দিলে ‘এনওসি’ বন্ধের মত কঠোর পদক্ষেপে যাবেন তারা।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 34 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com