বিবাদী কর্তৃক আত্মসাৎকৃত কিস্তিতে ক্রয় করা ট্রাকটি ফেরত পেতে বাদী পক্ষ মিলি’র পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

Print

বেনাপোল(যশোর)প্রতিনিধি: বেনাপোল পোর্ট থানাধীন দিঘীরপাড় গ্রামের মিলি খাতুন সহ তার পরিবার সংবাদ সম্মেলন করেন। বুধবার(৩০শে অক্টোবর) সন্ধ্যা ৭টায় স্থানীয় সীমান্ত প্রেসক্লাব বেনাপোল কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিয়ে মিলি পরিবারের পক্ষে কথা বলেন মিলির মাতা মর্জিনা খাতুন। সংবাদ সম্মেলনে মিলি পরিবারের পক্ষে মর্জিনা বেগম জানান, মামলার বিবাদী (১) মোছাঃ রেখা বেগম(৩৮),(২) মোছাঃ মমতাজ বেগম(৪০) সর্ব পিং- রবিউল ইসলাম, (৩) রবিউল ইসলাম(৬৫) পিং মৃত কালু সানা, (৪) নবীছল(৬০) পিং রুবেল ইসলাম, সর্ব সাং- দিঘীরপাড়, থানা বেনাপোল পোর্ট, জেলাঃ যশোর।

উপরিউল্লিখিত বিবাদী গনের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ষড়যন্ত্রকারী কল কলহপিয় দাঙ্গাবাজ, আইন অমান্যকারী এবং মাদক ও ইয়াবা কারবারী স্ট্যাম্প জালিয়াতি হিসেবে ফৌজদারী কার্যবিধির ১০৭/১১৭(সি) ধারায়-(১/১০/২০১৯ইং) তারিখ মোকাদ্দমা রুজু করা হয়। মোকাদ্দমায় বলা হয় বিবাদীপক্ষ রেখা খাতুন গংয়েরা মামলা থেকে অব্যাহতি পাওয়ার জন্য হলফনামা প্রস্তুত করার কথা বলে ৬ (ছয়)টি ১০০/ টাকা মূল্যের নন জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে বাদী মিলি খাতুন স্বামী জাকির হোসেন জীবন এবং মিলির পিতা ইউনুস আলীর নিকট থেকে অলিখিত ঐ স্ট্যাম্প গুলোতে স্বাক্ষর করে নেয় এবং স্ট্যাম্প গুলোতে মামলার হলফনামা প্রস্তুত না করে বিবাদী পক্ষ রেখা খাতুন গংয়েরা গুম করা ঐ ৬ (ছয়)টি স্ট্যাম্পে উল্লেখ করা সর্বমোট সাড়ে ১৩ লক্ষ টাকা বাদী মিলি খাতুন, তার স্বামী এবং তার পিতার নিকট পাইবে এই মর্মে একটি জাল চুক্তিনামা প্রস্তুত করে। অলিখিত স্ট্যাম্প গুলো ফেরত পেতে এবং জাল চুক্তিনামা তৈরীর জন্য বিচার চেয়ে বাদী মিলি খাতুন এবং তার পরিবার বিবাদী রেখা গংয়ের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১০৭/১১৭(সি) ধারায় মামলা করেন, তারিখ(১/১০/২০১৯ইং)।

অপরদিকে, ঐ ৬টি স্ট্যাম্পে লিখিত চুক্তিনামা টাকা গৃহীতা মিলি খাতুন এবং তার পরিবার ও সঙ্গীগনের উপস্থিতিতে স্ট্যাম্পে উল্লেখিত টাকার পরিমাণ এবং শর্তাবলী মানিয়া টাকা গৃহীতা মিলি খাতুন এর পরিবার সহি স্বাক্ষর করেন বলিয়া রেখা বেগম গং এর পক্ষে মোছাঃ মমতাজ বেগম(৪০) পিং মোঃ রবিউল সানা গ্রাম দিঘীরপাড় থানা বেনাপোল পোর্ট। বাদী হয়ে মিলি পরিবারের বিরুদ্ধে অতিরিক্ত ম্যাজিস্ট্রেট জেলা যশোর আদালতে একটি মামলা দায়ের করে। যার নম্বর ফৌজদারি কার্যবিধি ৯৮ ধারা, তারিখ(৫/১০/২০১৯ইং)।

এদিকে, সংবাদ সম্মেলনে মিলি পরিবারের পক্ষে মর্জিনা বেগম সংবাদ সম্মেলনে আরো বলেন, বাদী মিলির নামে নিটল মটরস থেকে সর্বমোট ৩৫,০০০০০(পয়ত্রিশ লক্ষ) টাকা মূল্যের একটি ট্রাক যার নম্বর ঢাকা মেট্র-ট-২২১০৪৫ কিস্তিতে লইয়া পরিচালনা করিয়া আসছিল। গত ইং (২৩/১০/২০১৯ইং) তারিখ রাত আনুমানিক ৮ টার সময় গাড়ির ড্রাইভার সাক্ষী বাপ্পি ট্রাকটি পণ্য আনলোড করিয়া যশোর বেনাপোল চেকপোস্ট বর্ডারের সম্মুখে পৌছাইলে মামলায় উল্লেখিত আসামীগণ অজ্ঞাত নামা অনুমান ১০জন হঠাৎ আক্রমণ করিয়া খুন-জখমের ভয় দেখিয়ে ড্রাইভার বাপ্পির নিকট হইতে ট্রাকটি ছিনাইয়া লয়।

সেই সাথে ট্রাকের চাবি, নগদ অর্থ৪৫,০০০(পয়তাল্লিশ হাজার) টাকা ও ট্রাকের জরুরী কাগজপত্র লইয়া আসামি গফফার নিজের একটি চালাইয়া গাতী পাড়ার দিকে চলিয়া যায়। মর্জিনা বেগম করা মামলার সাক্ষীগণ স্ব-চক্ষে দেখেছেন। রেখা বেগমের গংয়েরা তাদের হীন চরিতার্থ কার্যকর করার লক্ষ্যে তারা এ কাজটি করেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে মর্জিনা বেগম জানান। ট্রাকটি এখন আসামিদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। নিটল মটরস থেকে কিস্তিতে নেওয়া ট্রাকটি ফেরত পেতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী পুলিশ কর্তৃপক্ষের প্রতি মর্জিনা বেগম আবেদন জানিয়েছেন। বিবাদী রেখা বেগম, এবং মমতাজ বেগম দুর্ধর্ষ প্রকৃতির।এলাকার সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোকজনের সাথে নিয়ে বাদী মিলি এবং তার পরিবারের ওপর হুমকি এবং ভয়-ভীতি দেখাইতেছে। বাদীর বাড়িতে মাদক ও অস্ত্র রেখে মামলার হুমকি দিতেছে।

এই অবস্থায় বাদী মিলি এবং তার পরিবার ভীত সন্ত্রস্থ হয়ে আইনের সহায়তা চেয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন। বাদীপক্ষ সংবাদ সম্মেলনে বিবাদীপক্ষ রেখা বেগম এবং তার বোন মমতাজ বেগম এর নিকট থেকে ট্রাকটি ফেরত পেতে এবং জানের নিরাপত্তা চেয়ে তাদেরকে আইনের
আওতায় আনতে সাংবাদিকদের সহায়তা চান।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 45 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com