বিয়ের পর যেসব কারণে মোটা হয় নারীরা

Print
কথায় আছে বিয়ের পানি পড়লে নাকি অনেকেই মোটা হয়ে যায়। এই বিষয়টি মূলত নারীদের ক্ষেত্রে বেশি বলা হয়। তবে বিষয়টি অনুমানভিত্তিক একেবারেই নয়। গবেষণা থেকে দেখা গেছে সত্যি বিয়ের পর নারীরা একটু বেশি মোটা হয়ে যায়।অনেক ক্ষেত্রে এই মোটা হওয়ার জন্য সেক্সকে দায়ি করা হয়। অনেকে মনে করেন, বিয়ের পর সেক্স করার ফলে নারীদের হরমোনের পরিবর্তন ঘটে। যা মোটা হতে সাহায্য করে। কিন্তু গবেষণা বলছে, নারীদের মোটা হওয়ার জন্য সেক্স কোনওভাবেই দায়ি নয়।

আসল বিষয়টা লুকিয়ে রয়েছে অন্য জায়গাতে। বিয়ের আগে নারীরা স্লিম অ্যান্ড ট্রিম হওয়ার জন্য অনেক কিছুই করেন। খাওয়া কমানো থেকে শুরু করে ওয়ার্কআউট করা সবই। একটা নির্দিষ্ট রুটিন বানিয়ে ফেলেন। কিন্তু, বিয়ে হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁদের সেই রুটিনের বারোটা বেজে যায়।

কীভাবে ?
বিয়ের আগে নিজের বাড়িতে একটা রুটিনের মধ্যে চলছিলেন তাঁরা। নির্দিষ্ট সময় ঘুম থেকে ওঠা, ঠিক সময় খাবার খাওয়া, তাও আবার পরিমাণ বুঝে। কিন্তু, বিয়ের পর একটা নতুন বাড়িতে এগুলি সম্ভব হয় না। নতুন লোকজন, নতুন পরিবেশের মাঝে নির্দিষ্ট সময় খাওয়া তাও আবার বেছে বেছে সেটা অসম্ভব। ফলে বিয়ের আগের দিনগুলির রুটিনের পরিবর্তন হয়ে যায়।

এছাড়া প্রথা মেনে বিয়ের পর আত্মীয়ের বাড়িতে খেতে যাওয়ার একটা রেওয়াজ আছে ভারতীয়দের মধ্যে। এবার সেই আত্মীয়ের বাড়িতে গিয়ে এটা খাব না, ওটা খাব না বলা যায় না। যা খেতে দেয় সবই খেয়ে নিতে হয়।

ফলে বিয়ের ছ’মাস আগে যেভাবে রোগা হওয়ার জন্য নারীরা রুটিন ও নিয়ম বানান, বিয়ের ছ’মাস পরে সেই রুটিনের পুরো বারোটা বেজে যায়। আর তাই ওই সময় সবথেকে বেশি মোটা হয়ে যান তাঁরা।

তবে মোটা হওয়ার আরও একটা কারণ রয়েছে। তা হল, ভালোবাসা ও নিরাপত্তা। এতদিন অভিভাবকদের নিরাপত্তার ঘেরাটোপের মধ্যে ছিলেন। বিয়ের পর নতুন পরিবেশে অন্য এক মানুষের সঙ্গ মিলছে। যার সঙ্গে গোটা জীবন কাটাবেন।

এমনকী, বাবা-মায়ের নিরাপত্তার থেকে এই নিরাপত্তা আর ভালোবাসা একটু অন্যরকম হয়। সেই নিরাপত্তা আর ভালোবাসা যদি সঠিক হয়, তাহলে অভিভাবকদের থেকে দূরে এসেও অনেকটা শান্তি পাওয়া যায়। যা মনকে অনেকটা নিশ্চিন্ত করে তোলে। আর মনের এই শান্তির জন্যও অনেকে মোটা হয়ে যান।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 761 বার)


Print
bdsaradin24.com