ভেতরকার সৌন্দয্যকে ফুটিয়ে তোলার লক্ষে ব্লাক ডায়মন্ড মেকওভার

Print

“সাজসজ্জা” যা ফুটিয়ে তোলে ভেতরকার সৌন্দয্যকে এবং তার স্বপ্ন পূরনের লক্ষ্যে ব্লাক ডায়মন্ড মেকওভার পেইজ নিয়ে পথ চলা শুরু-আনজিতা আহাদ তন্নির..

প্রথমেই বলে নেই জীবনে যেকোনো কাজ সফল ভাবে শুরু করার আগে নিজের পরিবার এর সাপোর্ট খুব জরুরী যা আমি প্রথম থেকেই পেয়ে এসেছি আলহামদুলিল্লাহ…আমার বড় আপুনি,বাবা,মা,ভাই এর সাপোর্ট না পেলে আজকে আমি যতটুকুই আগাতে পেরেছি তা সম্ভব হত না.

ছোটবেলা থেকেইই গান করতো আনজিতা.
স্কুলের সব প্রোগ্রামেই আনজিতার গান গাওয়া চাই চাই.সভাবতই প্রোগ্রামে সাজুগুজু করা হত.তখন থেকেই সাজগোজর প্রতি ঝোক তার.ছোটবেলায় তার বড় আপুনি সাজিয়ে দিতো তাকে.এর পর নিজে নিজে সাজুগুজু নিয়ে শুরু হয় তার আঁকিবুঁকি.প্রথমে তার আত্মীয়পরিজন এবং বন্ধুমহলে বেশ সুনাম অর্জন করে সে.তারপর সিদ্ধান্ত নেয় কাজটাকে আরো ভাল ভাবে গুরুত্ত দেয়ার.২০১৪ সালে সে প্রথম একটি প্রতিষ্ঠান থেকে মেকওভার এর বেসিক কোর্স করে এবং তার বাসায় টুকিটাকি কাজ শুরু করে মেকওভার ও চুল রিবন্ডিং এর.সেখান থেকেই কাজের শুরু পড়ালেখার পাশাপাশি সে করতে থাকে টুকিটাকি কাজ বেশ অল্প কিছুদিনের ভিতরেই সে তার ভালো কাজের সুনাম অজর্ন করে নেয় পরিচিতদের থেকে.২০১৪ সালে সে সোসাল মিডিয়া ফেইসবুক গণমাধ্যম এর জনপ্রিয় লেডিস গ্রুপ ফেমিস ফেস্তা নামের গ্রুপে এড হয়ে দেখেন অনেক অনেক মেয়েরাই অনলাইনে রেজিস্টারড বিজনেস করছেন.তখন সে গ্রুপ এর বিভিন্ন প্রোগ্রাম এ এটেন্ড করেন এবং ২০১৬ তে সে প্রথম গ্রুপে স্পন্সরশীপ রেজিস্টারড হন এবং ৭০,০০০ সদস্যের গ্রুপটিতে তার নিজের করা কাজ উপস্থাপন করেন যার মাধ্যমে অনেক মেয়েরাই তার কাজের সন্ধান পান.তার বিজনেস পেইজ “ব্লাক ডায়মন্ড মেকভার” এর পরিচিতি বেড়ে যায় এবং তার কাজ এর সুনাম ও বেরে যায়.কাজের পাশাপাশি সে আরো বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান থেকে সার্টিফাইড হন.এবং ইন্টারন্যেশনাল আর্টিস্ট থেকেও সে এখন সার্টিফাইড. তার ইচ্ছা ভালো কাজ দিয়ে সবার মন জয় করে ধীরে ধীরে উপরে উঠার.এবং সুন্দর মনের মত করে একটি বিউটি স্যালুন দেয়ার যেখানে সব মেয়েরা নির্দিধায় যেতে পারবেন.তার মতে ব্যংকার,ডক্টর,ইঞ্জিনিয়ার,শিক্ষকতা,শুধুমাত্র এগুলই একটা মেয়ের সফল ক্যারিয়ার হতে পারে তা নয় এই প্রফেশন টাও একটি মেয়ের জন্য অনেক সুরক্ষিত ও সম্মানীয় বলে মনে করেন এবং সফলতা আসবেই.
সে যেনো আরো ভালো ভালো কাজ দিতে পারে তাই সে সকলের দোয়া প্রার্থি.
ফেম্মিস ফেস্তা গ্রুপ নিয়ে আনজিতা আহাদ তন্নি বলেন- ফেম্মিস ফেস্তা গ্রুপ না থাকলে হয়তবা আমাকে সবাই এতোটা চিনতো না.আমার বেশির ভাগ ক্লায়েন্ট ই ফেম্মিস এর সদস্য. আমার শুরুটায় আমাকে ফেম্মিস ফেস্তা এবং গ্রুপ এর এডমিন শান্তু আপু যতটা সাপোর্ট দিয়েছে তা বলে শেষ করা যাবেনা সত্যিই আমি অনেক কৃতজ্ঞ এবং অনেক অনেক ভালবাসা ও শুভকামনা ফেম্মিস ফেস্তার এবং শান্তু আপুরর জন্য

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 234 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com