ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ শুরু আজ

Print

২০২০ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি শুরু হয়ে যাবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকেই। শনিবার ফ্লরিডায় টি-টোয়েন্টি বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ ভারতের। ফ্লোরিডায় ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে আটটায়। যেখানে আন্দ্রে রাসেলকে ছাড়াই নামতে হবে কার্লোস ব্রাথওয়েটদের। রাসেলের চোট এখনও সারেনি। পরিবর্ত হিসেবে জেসন মোহাম্মদকে নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

বিরাট কোহালির সামনে এবার চ্যালেঞ্জ, দল গড়ে তোলার। বিশ্বকাপে মিডল-অর্ডার বিভ্রাট এখনও কাটিয়ে উঠতে পারেনি দল। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকেই শুরু হবে সংস্কার। যেখানে সুযোগ দেওয়া হবে মনিশ পাণ্ডে, শ্রেয়াস আইয়ারদের মতো তরুণ প্রতিভাদের। বোলিং বিভাগেও ভারতের ভরসা তরুণরাই। নভদীপ সাইনি, দীপক চাহার, খলিল আহমেদের মতো পেসার রয়েছেন। স্পিন বিভাগে দেখা যাবে রাহুল চাহার, ওয়াশিংটন সুন্দর, ক্রুনাল পান্ডিয়াদের।

ভারতীয় তরুণ ব্রিগেড অনভিজ্ঞ হলেও আইপিএলে প্রত্যেকেই দাপিয়ে বেড়িয়েছেন। তাঁদের মধ্যে রাহুল ও দীপকের পারফরম্যান্স অত্যন্ত ভাল। ম্যাচের এক দিন আগে দুই ভাই মিলে এক সাক্ষাৎকারে নিজেদের স্বপ্নপূরণের গল্প শুনিয়েছেন। দীপক বলেছেন, ‘ভারতীয় দলের হয়ে একসঙ্গে খেলার স্বপ্ন নিয়েই ক্রিকেট শুরু করেছিলাম আমরা। আমাদের পরিবারও একই স্বপ্ন নিয়ে এগিয়েছে। রাহুলের সঙ্গে ভারতীয় দলের জার্সিতে খেলার সুযোগ পাব ভেবেই গায়ে কাঁটা দিচ্ছে।’

ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য আরও একটি খুশির খবর। রোহিত শর্মার সঙ্গে ওপেনার হিসেবে ফিরতে চলেছেন শিখর ধাওয়ান। বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সেঞ্চুরি করার দিনই বাঁ-হাতে চোট পেয়ে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে গিয়েছিলেন ধাওয়ান। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের ম্যাচে তিনি আবার ফিরতে চলেছেন ভারতীয় জার্সিতে। রোহিত শর্মার সামনেও অনন্য নজির গড়ার সুযোগ। টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ওভার বাউন্ডারির নজির গড়তে পারেন তিনি। ক্রিস গেইলের (১০৫) চেয়ে এখনও পিছিয়ে রয়েছেন রোহিত (১০২)। গেইল যেহেতু টি-টোয়েন্টি দলে নেই, তাই রোহিতের সামনে তাঁকে ছাপিয়ে যাওয়ার বড় সুযোগ আজ।

ভারতীয় দলের একটাই সমস্যা, দুই ওপেনারকে বাদ দিলে সেরকম পাওয়ার হিটার নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজে পাওয়ার হিটারের অভাব নেই। সুনিল নারিনকে তাঁরা দলে ফিরিয়েছেন। অধিনায়ক ব্রাথওয়েট নিজে বড় শট নিতে পারেন। এ ছাড়াও এভিন লুইস, শিমরন হেটমায়ার, নিকোলাস পুরানদের প্রত্যেকেরই বড় শট নেওয়ার ক্ষমতা রয়েছে। ক্যারিবিয়ান কোচ ফ্লয়েড রিফার তাঁর দল নিয়ে খুশি। বলছিলেন, ‘অভিজ্ঞতা ও তারুণ্যের মিশেলই আমাদের শক্তি। সবাই প্রচণ্ড মজা করে ক্রিকেট খেলতে পছন্দ করে। এটাই ক্যারিবিয়ান ক্রিকেটের ঘরানা। সেটা কখনওই বদলাতে চাইনি।’

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 13 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com