‘ভালো’ কোম্পানির পণ্য নিম্নমানের হলে মানুষ খাবে কী

Print

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যদেশের স্বনামধন্য কয়েকটি কোম্পানির খাদ্যপণ্য মানোত্তীর্ণ না হওয়ায় সেগুলোর সনদ (সার্টিফিকেশন মার্কস বা সিএম লাইসেন্স) বাতিল করেছে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই)। এর মধ্যে খাজানা মিঠাইয়ের লাচ্ছা সেমাই, ঘি ও চানাচুর অন্যতম। স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে, বড় বড় কোম্পানির পণ্যের মানের ওপর যদি আস্থা রাখা না যায়, তাহলে মানুষ খাবে কী?

বিএসটিআই বলছে, পরিদর্শন দলের মাধ্যমে খোলাবাজার থেকে নমুনা কিনে পরীক্ষা করেছে তারা। পরীক্ষায় পণ্যগুলো মানোত্তীর্ণ হতে পারেনি।

বিএসটিআই থেকে পাওয়া তথ্য বলছে, গত জুনে ১৬টি পণ্যের লাইসেন্স বাতিল করে সংস্থাটি। গত বুধবার (৭ আগস্ট) আরও ১৩টি পণ্যের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। এর মধ্যে রেভেন ফুডের লাচ্ছা সেমাই এবং খাজানা মিঠাইয়ের লাচ্ছা সেমাই, ঘি ও চানাচুর উৎপাদনে না থাকায় তাদের লাইসেন্স বাতিল করা হয়।

পণ্যের লাইসেন্স বাতিলের কারণ হিসেবে বিএসটিআই বলেছে, প্রথম দফার পরীক্ষায় মান খারাপ পাওয়ার পর দ্বিতীয় দফার পরীক্ষায়ও মানের কোনও উন্নতি না হলে তারা লাইসেন্স বাতিল করে থাকে। সংস্থাটির উপ-পরিচালক রিয়াজুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘রেভেন ফুড এবং খাজানা মিঠাইয়ের পণ্যের উৎপাদন নেই, ফলে তারা আমাদের মান নিশ্চিত করতে পারবে না। তাদের পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে যে লাইসেন্স লাগবে না। পরীক্ষায় বাকিগুলোর নিম্নমান পেয়েছি।’

প্রথমবার পরীক্ষায় মান খারাপ পেলে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয় জানিয়ে তিনি বলেন, ‘জবাব সন্তোষজনক হলে আমরা গ্রহণ করি। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই তারা অনুরোধ করে পুনরায় পরীক্ষা করার জন্য। দ্বিতীয়বার ফেল করলে আমরা লাইসেন্স বাতিল করে দিই।’

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 28 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com