ভৈরবে দিন দিন ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে কিশোর ছিনতাইকারীরা

Print

ভৈরবে মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে কিশোর ছিনতাইকারীরা । মাদকাসক্ত কিশোররা নেশার টাকা যোগাড় করতে এসব অপরাধ করে যাচ্ছে বলে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। ভৈরবে গত সাত দিনে সাতটির বেশি ছিনতাইয়ের ঘটনায় সাতজন গুরুতর আহত হয়। প্রতিদিন শহরে ছিনতাইয়ের ঘটনা বেড়েই চলেছে।

ভৈরব শহরে প্রতিদিন চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি নিত্যদিনের ঘটনা। বিশেষ করে মাদকাসক্ত কিশোর অপরাধীরা রেলস্টেশন সংলগ্ন, নাটাল মোড়, মেঘনা নদীর পাড়, ভৈরবপুর, গাছতলাঘাট, স্টেডিয়াম সংলগ্ন, ঘোড়াকান্দা, কমলপুর, আমলাপাড়া, দড়িচন্ডিবেরসহ বিভিন্ন এলাকায় ছিনতাই, ডাকাতি করছে। পুলিশ এসব অপরাধীদের গ্রেফতার করে মাঝে মধ্য মামলা দিয়ে জেলে পাঠালেও তারা জামিনে বের হয়ে আবারো অপরাধে জড়িয়ে পরছে। মাদকের টাকা যোগাড় করতেই এসব ঘটনা ঘটছে বলে একাধিক সূত্র জানায়।

গত ১০ সেপ্টেম্বর মঙ্গরবার দিনে দুপুরে ভৈরব মেঘনা পাড়ে রেলওয়ে নতুন সেতু সংলগ্ন এলাকায় বাদশা মিয়া (১৬) নামের এক কিশোরকে ছিনতাইকারীরা ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে তার দুটি আঙ্গুলের অর্ধেক বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। আহত ব্যক্তি শহরে নিউটাউন এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে। গত ৮ সেপ্টেম্বর রোববার রাত প্রায় ৯ টায় শহরের নাটাল মোড় এলাকায় বিশ্বনাথ দাস (২৫) নামের এক যুবককে ছিনতাইকারীরা ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। সে কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম এলাকার গোপাল চন্দ্র দাস এর ছেলে। একই রাত সাড়ে ১১ টায় ভৈরবের কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নের কুমিরপাড়া গ্রামের কামাল মিয়া ছেলে চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবী বিভাগের ২য় বর্ষের শির্ক্ষাথী নুরুজ্জামানকে (২৩)ছিনতাইকারীরা শহরের ভৈরবপুর উত্তর পাড়া এলাকায় আহত করে। ঘটনার সময় সে বাড়ি থেকে রেলস্টেশনে যাচ্ছিল।

আহত তিনজনের জবানবন্দি থেকে জানা যায়, কিশোর বয়সের ছিনতাইকারীরা তাদের সাথে থাকা দামি মোবাইল, পকেটের টাকা ও মূল্যবান জিনিসপত্র ছুরির ভয় দেখিয়ে নিতে চাইলে তারা বাধা দেয়। একারণে ছিনতাইকারীরা তাদেরকে ছুরিকাঘাত করে আহত করে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 54 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com