মাথা ঠিক ছিল না, টানা ১ ঘণ্টা পিটিয়েছি

Print

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে জড়িত অনিক সরকার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে আদালতকে বলেছেন, ‘ওকে (আবরার) আগে থেকে শিবির সন্দেহ করা হতো। কক্ষ থেকে ধরে আনার পর সে আবোল-তাবোল বলছিল। ওর মোবাইলে ইসলামী গান ও গজল পাওয়া যায়। সে শিবিরে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে। তখন মাথা ঠিক ছিল না। স্টাম্প দিয়ে বেধরক মারধর শুরু করি। দুই দফায় ওকে পিটিয়েছি। একবার টানা এক ঘণ্টা পিটিয়েছি।’

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলায় আদালতে জবানবন্দি দিতে গিয়ে এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন মামলার অন্যতম আসামি অনিক সরকার। আবরারকে বেধরক পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় এখনও তিনি অনুতপ্ত নন বলেও জানান অনিক।

গতকাল শনিবার মহানগর হাকিম আতিকুল ইসলামের খাস কামলায় অনিকের জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়। অনিক বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক সম্পাদক ছিলেন ও মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র।

জবানবন্দি গ্রহণের পর অনিককে কারাগারে পাঠায় আদালত।

আদালত সূত্র জানায়, আবরারের ওপর যারা সরাসরি হামলায় অংশ নেয় তাদের মধ্যে অনিক অন্যতম। হামলার সময় সে মদ্যপ ছিল। শুধু মারধরই নয়, আবরারকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজও করে সে।

আলোচিত এ হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত মোট তিনজন ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 69 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com