যেভাবে অনলাইনে ক্যাসিনো ব্যবসা চলত…

Print

প্রথমে একজন জুয়াড়িকে মোবাইলে টি-২১ ও পি-২৪ নামের দুটি অ্যাপস ডাউনলোড করতে হতো। পরে অ্যাপসগুলো থেকে তাঁর পছন্দমতো গেম বাছাই করতেন। এরপর শুরু হতো খেলা। জিতলে টাকা জমা হতো জুয়াড়ির নির্দিষ্ট ব্যাংক অ্যাকাউন্টে, আর হারলে টাকা কাটা যেত ওই একই অ্যাকাউন্ট থেকে। এভাবেই অনলাইনে ক্যাসিনো ব্যবসা চালিয়ে আসছিলেন সেলিম প্রধান।

র‍্যাব-১–এর অধিনায়ক লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম অভিযান শেষে আজ মঙ্গলবার বিকেল সোয়া চারটার দিকে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।

সারওয়ার বিন কাশেম জানান, অনলাইনে ক্যাসিনো কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার আগে প্রত্যেক জুয়াড়িকে নির্দিষ্ট ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট খুলতে হতো। এখন পর্যন্ত এমন তিনটি ব্যাংকের নাম জানতে পেরেছে র‍্যাব। ব্যাংকগুলো হলো যমুনা ব্যাংক, কমার্শিয়াল ব্যাংক ও সিলং ব্যাংক। অ্যাকাউন্টগুলোয় নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা রাখতে হতো। খেলায় জিতলে বা হারলে ওই অ্যাকাউন্টে টাকা যোগ হতো বা কাটা যেত। সম্পূর্ণ লেনদেন হতো একটি গেটওয়ের মাধ্যমে। এখন পর্যন্ত একটি গেটওয়েরই সন্ধান পেয়েছে র‍্যাব। সন্ধান পাওয়া ওই গেটওয়েতে কেবল এক মাসেই প্রায় নয় কোটি টাকা জমা হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আরও গেটওয়ে আছে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পরবর্তী সময়ে সেলিমের দুই সহযোগী আখতারুজ্জামান ও রোকন লেনদেনের এই টাকা হয় নগদে তুলে নিতেন, নয়তো বিদেশে পাঠিয়ে দিতেন।

অনলাইনে ক্যাসিনো ব্যবসার এই পুরো কার্যক্রমে সেলিম প্রধানের একজন ব্যবসায়িক অংশীদার ছিলেন। র‍্যাব জানিয়েছে, ওই ব্যবসায়িক অংশীদারের নাম মি. দো। তিনি উত্তর কোরিয়ার নাগরিক। জুয়াড়িদের থেকে যে টাকা পাওয়া যেত, সেগুলো সেলিম প্রধান ও দোর মধ্যে সমানভাবে ভাগ হতো। দোর সঙ্গে সেলিম প্রধানের পরিচয় হয় থাইল্যান্ডে। ১৯৭৩ সালে ঢাকায় জন্ম নেওয়া সেলিম তাঁর ভাইয়ের সহযোগিতায় জাপান চলে যান। জাপানে গিয়ে গাড়ির ব্যবসা শুরু করেন। এরপর জাপান থেকে চলে যান থাইল্যান্ডে। সেখানে গিয়ে শিপ ব্রেকিংয়ের ব্যবসার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। সেখানেই দোর সঙ্গে পরিচয় হয় তাঁর। পরিচয়ের পর দো সেলিম প্রধানকে অনলাইনে গেমিং সাইট খোলার পরামর্শ দেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 47 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com