রাতে আটক, ভোর রাতে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

Print

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক মাদক কারবারী নিহত হয়েছেন। এ সময় ২টি দেশীয় আগ্নেয়াস্ত্র, ১০ রাউন্ড কার্তুজ ও ৫ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

শনিবার রাতে আটকের পর রোববার (১৪ জুলাই) ভোর রাতে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নয়াপাড়া বালিকা মাদরাসার পেছনে নাফ নদীর পাড়ে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মুফিদ আলম (৩৮) টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের নয়াপাড়া এলাকার নজির আহম্মদের ছেলে। তিনি চিহ্নিত মাদক কারবারি বলে দাবি করেছেন টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ।

তিনি বলেন, ‘শনিবার রাতে এএসআই অহিদের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মাদক উদ্ধার অভিযানের সময় হোয়াইক্যং নয়াপাড়া বাজার এলাকা থেকে মুফিদ আলমকে আটক করে। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক আমার নেতৃত্বে পুলিশের টিম হোয়াইক্যং নয়াপাড়া বালিকা মাদরাসার পেছনে নাফ নদীর পাশে ইয়াবা উদ্ধারে যায়। এ সময় মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। কিছুক্ষণ গুলিবিনিময়ের পর মাদক ব্যবসায়ীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র, গুলি ও ইয়াবাসহ গুলিবিদ্ধ অবস্থায় মুফিদকে প্রথমে টেকনাফ উপজেলা হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।’

ওসি বলেন, মুফিদ আলমের বিরুদ্ধে মাদক, অস্ত্রসহ একাধিক মামলা রয়েছে। বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 30 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com