রাত পোহালেই জাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু

Print
মোঃ রায়হান চৌধুরী, জাবি প্রতিনিধি :
রাত পোহালেই জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হতে যাচ্ছে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা। ‘এ’ ইউনিটের (গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদ) পরীক্ষার মধ্য দিয়ে রবিবার থেকে এ ভর্তি পরীক্ষা শুরু হবে।
এ বছর সর্বমোট ১৮৮৯ আসনের বিপরীতে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে ৩ লাখ ৫৯ হাজার ৯৬২ জন শিক্ষার্থী। এ হিসেবে প্রতি আসনের জন্য ভর্তিযুদ্ধে অবতীর্ণ হবে ১৯১ জন ভর্তিচ্ছু।
ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত সকল কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার (শিক্ষা) ও ভর্তি পরীক্ষা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব আবু হাসান। তিনি জানান, ভর্তি পরীক্ষা আয়োজনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আগামীকাল থেকে পরীক্ষা শুরু হয়ে চলবে ১ অক্টোবর পর্যন্ত। আশা করছি কোনো ধরনের সমস্যা ছাড়াই সুষ্ঠুভাবে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
তিনি আরও জানান, ইতোমধ্যে ভর্তি পরীক্ষা পরিচালনা সংক্রান্ত ওয়েবসাইটে ‘এ’ এবং ‘এইচ’ ইউনিটের আসন বিন্যাস প্রকাশ করা হয়েছে। ‘এ’ ইউনিটের (গাণিতিক ও পদার্থবিষয়ক অনুষদের) পরীক্ষা মোট নয়টি শিফটে অনুষ্ঠিত হবে। ২২ সেপ্টেম্বর (রবিবার) ১ম শিফটে (সকাল ৯টা – ১০টা) ১১০০০১ – ১১৮৫২৩, ২য় শিফটে (সকাল ১০:২৫ – ১১:২৫) ১১৮৫২৫ – ১২৭০২৬, ৩য় শিফটে (সকাল ১১:৫০ – ১২:৫০) ১২৭০২৭ – ১৩৫৫৫২, ৪র্থ শিফটে (বেলা ১:৫০ – ২:৫০) ১৩৫৫৫৩- ১৪৪০৬৩, ৫ম শিফটে (বিকেল ৩:১৫ – ৪:১৫) ১৪৪০৬৪ – ১৫২৫৯৭ এবং ৬ষ্ঠ শিফটে (বিকেল ৪:৪০ – ৫:৪০) ১৫২৫৯৮- ১৬১১৫১ ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে।
পরদিন ২৩ সেপ্টেম্বর ১ম শিফটে (সকাল ৯টা – ১০টা) ১৬১১৫২ – ১৬৯৬৭৩, ২য় শিফটে (সকাল ১০:২৫ – ১১:২৫) ১৬৯৬৭৪ – ১৭৮১৭২, ৩য় শিফটে (সকাল ১১:৫০ – ১২:৫০) ১৭৮১৭৪ – ১৯৬১৩৩ রোলধারীদের পরীক্ষার মাধ্যমে ‘এ’ ইউনিটের পরীক্ষা শেষ হবে। এরপর ‘এইচ’ ইউনিটের (ইনস্টিটিউট অব ইনফরমেশন টেকনোলজি, আইআইটি) পরীক্ষা ৪র্থ শিফটে (বেলা ১:৫০ – ২:৫০) ৮১০০০২ – ৮১৮৮৩৪, ৫ম শিফটে (বিকেল ৩:১৫ – ৪:১৫) ৮১৮৮৩৫ – ৮২৭৭৪৬ এবং ৬ষ্ঠ শিফটে (বিকেল ৪:৪০ – ৫:৪০) ৮২৭৭৪৭ – ৮৯৬০৩৩ রোলধারীদের অনুষ্ঠিত হবে।
অন্যদিকে বাকি পরীক্ষাগুলোর মধ্যে ২৪ সেপ্টেম্বর ‘ডি’ ইউনিট (জীববিজ্ঞান অনুষদ), ২৫ সেপ্টেম্বর ‘ডি’ ইউনিটের অবশিষ্ট এবং ‘জি’ ইউনিট (ইনস্টিটিউট অব বিজনেস এ্যাডমিনিষ্ট্রেশন, আইবিএ-জেইউ), ২৬ সেপ্টেম্বর ‘এফ’ ইউনিট (আইন অনুষদ) এবং ‘আই’ ইউনিট (বঙ্গবন্ধু তুলনামূলক সাহিত্য ও সংস্কৃতি ইনস্টিটিউট)। এছাড়াও ২৯ সেপ্টেম্বর ‘সি’ ইউনিট (কলা ও মানবিকী অনুষদ: নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ এবং চারুকলা বিভাগ ব্যতিত), ৩০ সেপ্টেম্বর ‘সি’ ইউনিটের অবশিষ্ট, ‘সি১’ ইউনিট (কলা ও মানবিকী অনুষদ: নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগ এবং চারুকলা বিভাগ) এবং ‘ই’ ইউনিট (বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ) এবং সর্বশেষ ১ অক্টোবর ‘বি’ ইউনিটের (সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ) ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
এ বছর ইউনিট ভেদে সবচেয়ে বেশি প্রতিযোগিতা হবে ‘এফ’ ইউনিটে (আইন অনুষদ)। ‘এফ’ ইউনিটে প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়বে ৫৮৪ জন ভর্তিচ্ছু। অপরদিকে সবচেয়ে কম প্রতিযোগিতা হবে ‘ই’ ইউনিটে (বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ)। ‘ই’ ইউনিটে প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়বে ১০৪ জন ভর্তিচ্ছু। এছাড়াও ‘এ’ ইউনিটে ১৬৮ জন, ‘বি’ ইউনিটে ১৫৩ জন, ‘সি’ ইউনিটে ১৬১ জন, ‘সি১’ ইউনিটে ১৫১ জন, ‘ডি’ ইউনিটে ২৩৯ জন, ‘জি’ ইউনিটে ১৯১ জন, ‘এইচ’ ইউনিটে ৩৫২ জন এবং ‘আই’ ইউনিটে ৩১৮ জন ভর্তিচ্ছু প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়বেন।
ভর্তিচ্ছুদেরকে পরীক্ষার হলে ভর্তি পরীক্ষার এডমিট কার্ড, এইচএসসির মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড অবশ্যই সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে। যাদের মূল রেজিস্ট্রেশন কার্ড অন্য প্রতিষ্ঠানে জমা আছে তাদেরকে রেজিস্ট্রেশন কার্ডের সত্যায়িত ফটোকপি সাথে নিয়ে আসতে হবে। ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য
(www.ju-admission.org) ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।
প্রতিবারের ন্যায় এবারেও ভর্তি পরীক্ষায় থেকে যাচ্ছে সেই বিতর্কিত শিফট পদ্ধতি। একই অনুষদের পরীক্ষা বিভিন্ন শিফটে নেয়ার ফলে থেকে যাচ্ছে মেধা মূল্যায়নের বৈষম্য। বিভিন্ন অনুষদে ভিন্ন ভিন্ন শিফটে পরীক্ষা হওয়ায় মেধার সঠিক মুল্যায়ন হচ্ছে না বলে দাবি করছেন সচেতন শিক্ষার্থী ও অভিভাবক মহল। কোন শিফটে প্রশ্ন কঠিন আবার কোন শিফটে প্রশ্ন সহজ হওয়ায় এই বৈষম্য হচ্ছে বলে মনে করছে শিক্ষার্থীরা। তাই দীর্ঘদিন ধরে বিতর্ক চলছে জাবির এই শিফট পদ্ধতি নিয়ে।
তবে এবছরও ভর্তি পদ্ধতি গত বছরের ন্যায় থাকছে অনলাইন পদ্ধতি। আবেদনের মতো অনলাইনেই করা যাবে ভর্তি প্রক্রিয়ার কাজ। বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার অফিস সূত্রে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিসহ বিভিন্ন ফি নিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অ্যাকাউন্ট নাম্বার (রকেট বা বিকাশ) দেওয়া হবে। সে নাম্বারে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ফি পাঠিয়ে দিবে।
এদিকে, ভর্তি পরীক্ষাকে কেন্দ্র করে ভর্তিচ্ছুদের পদচারণায় মুখরিত হতে শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে এসে ভর্তিচ্ছুরা ভিড় জমাচ্ছে ক্যাম্পাসের হলগুলোতে। আর ভর্তিচ্ছুদের শুভেচ্ছা জানাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে শহীদ মিনার পর্যন্ত তৈরি করা হয়েছে বিভিন্ন জেলা সমিতি, ছাত্র সংগঠন ও বিভাগের টেন্ড।
[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 51 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com