রোগ নিরাময়ের বদলে উল্টো জটিলতা

Print

মিথ্যা ঘোষণায় নামমাত্র মূল্যে মানহীন চিকিৎসাসামগ্রী আমদানি করে রমরমা ব্যবসা করছেন এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী। মানহীন ওই সব সামগ্রী সরবরাহ করা হচ্ছে দেশের বিভিন্ন ওষুধের দোকান, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতালে। সাধারণ মানুষ এসব সামগ্রী কিনে প্রতারিত হচ্ছে। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যানের কাছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের পাঠানো এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য থাকার কথা জানা গেছে।

চিকিৎসা খাতের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেছেন, নিম্নমানের চিকিৎসাসামগ্রী ব্যবহার করে রোগ নিরাময় হওয়া তো দূরের কথা রোগ আরো জটিল হতে পারে, এমনকি রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

এনবিআর সূত্রে জানা যায়, গত অর্থবছরে মানহীন চিকিৎসাসামগ্রীর ১১টি চালান আটক করেছে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর।

শুল্ক গোয়েন্দাদের তৈরি করা ওই প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, মানহীন চিকিৎসাসামগ্রী বেশি আমদানি করা হয়েছে তাইওয়ান, চীন, ভারত, ভিয়েতনাম, কোরিয়া, জার্মানি থেকে। ব্যবসায়ী পরিচয়ে একাধিক ব্যক্তি আন্তর্জাতিক চক্রের সহযোগিতায় মানহীন চিকিৎসাসামগ্রী আমদানি করছেন। ওই সব সামগ্রী দেশব্যাপী বিক্রিও করা হচ্ছে। বিভিন্ন বিভাগীয় ও জেলা শহরে অসাধু আমদানিকারকদের ডিলার বা এজেন্ট রয়েছে। ওই এজেন্ট বা ডিলাররা বিভিন্ন ওষুধের দোকান, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতালে মানহীন চিকিৎসাসামগ্রী কৌশলে বিক্রি করে থাকে। তবে তারা প্রকৃত মালিকের খোঁজ জানে না। ওই ডিলার বা এজেন্টদের কাছে সময়মতো কুরিয়ার বা অন্য কোনো পরিবহনে পণ্য পৌঁছে যায়। তারা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে অর্থ পরিশোধ করে থাকে।

প্রতিবেদন মতে, ওষুধের দোকান, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বেশির ভাগ সময় না জেনেই মানহীন সামগ্রী কিনে মজুদ করে রাখে। পরে সাধারণ মানুষের চাহিদা অনুযায়ী তা বিক্রি করা হয়। তবে অনেক সময় এসব প্রতিষ্ঠানের অসাধু ব্যক্তিরা আমদানিকারকদের কাছ থেকে অনৈতিক সুবিধা নিয়ে জেনেশুনেও মানহীন পণ্য কিনে থাকে। বাজারে বিক্রি হওয়া একই জাতীয় সামগ্রীর তুলনায় কম দামে বিক্রি করা হয় মানহীন ওই সব সামগ্রী।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 31 বার)


Print
bdsaradin24.com