শৃঙ্খলা নয় মামলাতে চোখ

Print

স্পটে ৩-৪ জন ট্রাফিক সার্জেন্ট ডিউটি পালন করেন। বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে তাদের কোনো তৎপরতা দেখা যায় না। গতকাল দুপুরে তোলা ছবি -মতিউর সেন্টু

আগস্টে ২ লাখ মামলায় ১১ কোটি টাকা জরিমানা সেবা সংস্থার পরিবর্তে ডিএমপি রাজস্ব আদায়ের প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে : পুলিশ কমিশনার

সকাল সোয়া ৯টা। ঢাকা-চট্টগ্রাম ৮ লেন মহাসড়কের কুতুবখালী অংশে যানজটে আটকে আছে অনেকগুলো গাড়ি। মেয়র হানিফ ফ্লাইওভারে ওঠার আগে রাস্তার উপর এলোপাথারি বাস দাঁড়িয়ে যাত্রী তুলছে। একটা নয়, বেশ কয়েকটি বাসে যাত্রী তোলা হচ্ছে। হেলপাররা সজোরে হাঁক ছাড়ছে এই ডাইরেক্ট গুলিস্তান, উপর দিয়া গুলিস্তান। রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় পেছনে অপেক্ষমান অনেকগুলো প্রাইভেট কার, দুরপাল্লার বাসসহ অন্যান্য যানবাহন। ফলাফল যানবাহনের দীর্ঘ সারি, যানজট। রাস্তার ওপাড়ে একজন ট্রাফিক সার্জেন্টের নেতৃত্বে তিনজন পুলিশের সেদিকে নজর নেই। তারা ব্যস্ত ঢাকা থেকে বের হওয়া গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষা নিয়ে। রাস্তার মাঝখানে দাঁড়িয়ে বেছে বেছে দুজন কনস্টেবল গাড়ি আটকাচ্ছেন। আর ট্রাফিক সার্জেন্ট কাগজপত্র পরীক্ষা করে মামলা দিচ্ছেন। অথচ সার্জেন্টের সামনেই রাস্তার এপাড়ে তখন যানবাহনের বিশৃঙ্খলায় দীর্ঘ যানজট।

দুপুর ২টা ৮ মিনিট। যাত্রাবাড়ী-গুলিস্তান ফ্লাইওভারের উপর দিয়ে একটি মোটরসাইকেল এসে গুলিস্তানে ফ্লাইওভারের গোড়ায় নামে। মোটরসাইকেলটি সামনে এগুতে গেলে থামতে ইশারা দেন দায়িত্বরত ট্রাফিক সার্জেন্ট। রাস্তা উপর দাঁড়িয়েই কয়েক মিনিট ধরে কাগজপত্র তল্লাশী করেন ওই সার্জেন্ট। একপর্যায়ে তিনি মামলা দিতে উদ্যত হলে মেয়ের অসুস্থতার কথা বলে সার্জেন্টের কাছে মামলা না দিতে অনুরোধ করেন মোটরসাইকেল চালক। মেয়ের ডেঙ্গু জ্বর পরীক্ষার রিপোর্ট আনতে ওই চালক নারায়ণগঞ্জ থেকে শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের দিকে যাচ্ছিলেন বলে জানান। তখন সার্জেন্ট মামলা না দিয়ে তাকে ছেড়ে দেন। একই সময়ে আরও কয়েকটি মোটরসাইকেল ও সিএনজি অটোরিকশাকে কাগজ তল্লাশীর জন্য ওই মোড়ে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। এভাবে ফ্লাইওভারের গোড়ায় দাঁড়িয়ে কাগজপত্র তল্লাশীর কারণে ফ্লাইওভার থেকে নামা বিভিন্ন যানবাহনকে মোড় ঘুরতে বেগ পেতে হয়। ট্রাফিক পুলিশের গাড়ি থামানো ও মামলার কাজে ব্যস্ত থাকায় নিয়ন্ত্রণহীন চালকরা নিজেদের খেয়াল-খুশি মতো গাড়ি ঘোরান। এতে ফ্লাইওভারের গোড়ায় যানজট ও বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 35 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com