শ্রেণীকক্ষের অভাবে খোলা আকাশের নীচে পাঠদান

Print


জেলা প্রতিনিধি, নাটোরঃ নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার রয়না ভরট সরকার বাড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে শ্রেণীকক্ষ ও বেঞ্চ সংকটের কারণে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। স্থান সংকুলান না হওয়ায় খোলা আকাশের নীচে সবুজ ঘাসের উপর বসেই চলছে শিক্ষার্থীদের পাঠদান। শ্রেণীকক্ষেও গাদাগাদি করে ক্লাস করছে শিক্ষার্থীরা। প্রচন্ড শীতে খোলা মাঠে বসে ক্লাস করতে গিয়ে শিক্ষার্থীরা ঠান্ডাজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। এদিকে, বিদ্যালয় ভবনের অবস্থাও জরাজীর্ণ। অধিকাংশ কক্ষের জানালার পাল্লা ভাঙ্গা। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সবার ব্যবহারের জন্য মাত্র দুটি টয়লেট ও একটি টিউবয়েল রয়েছে। কখনও এগুলো অকেজো হলে দুর্ভোগের অন্ত থাকে না। বিদ্যালয় ফলাফল বরাবরই ভাল হলেও এসব কারণে বিদ্যালয় বিমুখ হয়ে যাচ্ছে অনেক শিক্ষার্থী। 
বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়ক সংলগ্ন এ বিদ্যালয়টি ১৯৯৩ সালে স্থানীয় শিক্ষানুরাগীদের প্রচেষ্টায় প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান বিভাগসহ মোট চারশ’ ছাত্র-ছাত্রী লেখাপড়া করছে। স্থানীয়ভাবে সংগৃৃহিত টাকায় বিদ্যালয়ের আধাপাকা শ্রেণীকক্ষ নির্মাণ করা হলেও বর্তমানে শিক্ষার্থী বৃদ্ধি পাওয়ায় সেসব কক্ষে স্থান সংকুলান হচ্ছে না। এক কক্ষে পাঠদানের শব্দ অন্য শ্রেণীকক্ষে গিয়ে পাঠদানের বিঘœ ঘটে। প্রতিষ্ঠার ২৬ বছরেও সরকারীভাবে কোন ভবন বরাদ্দ না পাওয়ায় শ্রেণীকক্ষের অভাবে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিয়ত চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকদের বসার জন্য একটি কক্ষেই অফিস বানিয়ে কোন রকমে ব্যবহার করা হচ্ছে। তারপরও সে কক্ষেই বই-পুস্তকসহ বিদ্যালয়ের আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র রাখায় শিক্ষকেরাও চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। 
অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী জলি ও সুবর্ণা জানায়, প্রচন্ড শীতে খোলা মাঠে ক্লাশ করতে কষ্ট হয়। মাঝে মাঝে টয়লেটের দুর্গন্ধে স্কুলে টেকা দায় হয়ে পড়ে। সুন্দর পরিবেশে লেখাপড়া করার জন্য বিদ্যালয়ে সরকারীভাবে একটি ভবন বরাদ্দ দিলে আমরা উপকৃত হতাম। প্রধান শিক্ষক খাদেমুল ইসলাম বলেন, ‘শ্রেণীকক্ষ ও বেঞ্চের অভাবে বাধ্য হয়েই কখনও মাঠে, কখনও বারান্দায় পাঠদান করতে হচ্ছে। বিষয়টি একাধিকবার উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে, কিন্তু কোন সমাধান না হওয়ায় চরম বিপাকে রয়েছি।’ ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ মোবারক হোসেন বলেন, ‘ভাল রেজাল্ট স্বত্ত্বেও শ্রেণীকক্ষ সংকটের কারণে এলাকার অনেক শিক্ষার্থী বাইরের বিদ্যালয়ে গিয়ে ভর্তি হচ্ছে। বিদ্যালয়ে অবিলম্বে একটি ভবন বরাদ্দ দেয়ার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি। ’

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 225 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com