সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল দখলে আ.লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-৫

Print

মোঃ ইমরান সরদার,সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরা কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনালের দখল নিয়ে আওয়ামীলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় পক্ষের ৫ জন আহত হয়েছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে টার্মনালের মালিক সমিতির অফিস সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। বর্তমানে টার্মিনালে পুলিশ মোতায়ন রয়েছে।

একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সর্বশেষ আহবায়ক জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক আবু আহমেদের নেতৃত্বে শ্রমিকরা সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কেন্দ্রীয় টার্মিনালে গেলে বর্তমান দখলে থাকা অনির্বাচিত সভাপতি জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ছাইফুল করিম সাবু ও তার সদস্যদের সাথে সংঘর্ষের সুত্রপাত হয়। এসময় সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ৫ জন আহত হয়। আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনা জানতে পেরে সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইলতুৎ মিশের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক পুলিশ টার্মিনালে অবস্থান নিয়ে উভয়পক্ষকে ছত্রভঙ্গ করে দেন। এসময় সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের নির্দেশে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সজল মোল্যা ঘটনা স্থল পরিদর্শন করে টার্মিনালের অফিস কক্ষ সীলগালা করে দেন।

সাতক্ষীরার সদর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে এবং সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তিনি পুলিশ সুপারের বরাত দিয়ে আরো জানান, নির্বাচন না হওয়া পর্যন্ত মালিক সমিতির অফিস সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে থাকবে। নির্বাচনের পর বিজয়ী প্রার্থীদের কাছে সমিতির কার্যালয় হস্তান্তর করা হবে। সে অনুযায়ী সমিতির কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে।

বাস মালিক সমিতির আহবায়ক আ.লীগ নেতা অধ্যাপক আবু আহমেদ জানান, গত ৬ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে শহরের লেকভিউতে মালিক সমিতির এক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় নির্বাচনের তপশীল ঘোষণা করা হয়। এর পরদিন ৭ মে সাতক্ষীরা-২ আসনের এমপি মীর মোস্তাক আহমেদ রবি স্বাক্ষরকৃত ১৫ সদস্য বিশিষ্ট্য একটি কমিটি ঘোষণা করা হয় এব ওই কমিটির নেতৃত্বে জোরপূর্বক বাস টার্মিনাল দখল করে নেয়া হয়।

তিনি আরো জানান, শ্রমিক লীগ নেতা সাইফুল করিম সাবুর নেতৃত্বাধীন ওই কমিটি কোন কারণ ছাড়াই বাস মালিক শেখ জামাল উদ্দিন, জাহাঙ্গির হোসেন, নাছের উদ্দিন, কবির হোসেনসহ বিভিন্ন মালিকদের বাস চলাচল বন্ধ করে দেন। জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি সাইফুল করিম সাবুর বলেন, আমরা নির্বাচনের জন্য আগামী ২৭ অক্টোবর সাধারণ সভার আহবান করেছিলাম। এব্যাপারে নোটিশও দেয়া হয়েছে। হঠাৎ করে সকালে আবু আহমেদ ২০/৩০জন লোক নিয়ে টার্মিনালে ঢোকে। এসময় তাদের হামলায় আমার পক্ষের ৩ জন আহত হয়েছেন। পরে পুলিশ ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গিয়ে টার্মিনালের অফিস সিলগালা করে দিয়েছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 50 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com