সালমান এফ রহমানের পক্ষ থেকে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে খোলা চিঠি

Print

 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা, ঢাকা-১ দোহার- নবাবগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য সালমান ফজলুর রহমান। নিজ সংসদীয় আসনে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ সহ অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে একাধিক নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

সাম্প্রতিক সময়ে ‘কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ও অনভিপ্রেত ঘটনার’ পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার নিজ নির্বাচনী এলাকা দোহার ও নবাবগঞ্জের আওয়ামী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে লেখা এক খোলা চিঠিতে তিনি নানা রকম দিক নির্দেশনা দিয়েছেন।

ঐ চিঠিতে সালমান এফ রহমান লিখেছেন, এলাকায় তার আগমনকে কেন্দ্র করে ‘বিশৃঙ্খলা ও জনদুর্ভোগ সৃষ্টিকারী কর্মসূচি/কর্মকাণ্ডকে তিনি এরিয়ে চলতে চান। যেন জনসাধারনের কোন রকম দুর্ভোগ না হয়।

তিনি লিখেন জানান, অতি-উৎসাহী নেতাকর্মীদের বিশৃঙ্খল উপস্থিতি, অনিয়ন্ত্রিত ও অপ্রয়োজনীয় মোটরসাইকেলের বহর সাধারণ জনগণের মনে বিরক্তি সৃষ্টি করে। এ ছাড়া এলাকায় অভ্যর্থনা প্রদানের জন্য মোটরসাইকেলের বহর বা বিশৃঙ্খল শো-ডাউন না করতে তিনি নির্দেশনা প্রদান করেন।

কোনো সভা ও অনুষ্ঠান চলাকালে শৃঙ্খলা বজায় রাখা, অতিরিক্ত শ্লোগানসহ জনসাধারণের বিরক্তি উদ্রেককারী কর্মকাণ্ড থেকে নেতাকর্মীদের বিরত থাকতেও বলেন তিনি। এ সব কারনে সাধারন জনগন তাদের সমস্যার কথা ঠিক মত তার কাছে বলতে পারেন না বলে তিনি চিঠিতে উল্লেখ করেন।

এ ছাড়া দুই উপজেলার স্থানীয় প্রশাসনকে লেখা পৃথক এক চিঠিতে তিনি যত্রতত্র পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন অবিলম্বে অপসারণের নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি লিখেছেন, শুধুমাত্র সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড প্রচারের স্বার্থে বিশেষ স্থানে পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন লাগানো যাবে। এসব ক্ষেত্রেও কেবল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের ছবি ব্যবহার করা যাবে। এ ছাড়া পূর্বানুমতি ব্যতিত এ ধরনের পোস্টার, ব্যানার বা ফেস্টুনে নিজের ছবি ব্যবহার না করতেও তিনি নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন।

দোহার ও নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে লেখা ওই চিঠিতে তিনি ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের জন্য বিশেষ নির্দেশনাও দিয়েছেন।

তিনি লিখেছেন, ‘একটি আদর্শ ছাত্র সংগঠন হিসেবে নিজেদেরকে সুশিক্ষিত করার পাশাপাশি ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব হওয়া উচিত সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা ও সহ-শিক্ষা কার্যক্রম উন্নয়নের সঙ্গে নিজেদের সম্পৃক্ত করা ও শিক্ষার্থীদের সুবিধা-অসুবিধার দেখভাল করা। শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রমে যেন ব্যাঘাত না ঘটে এ বিষয়ে সব সময় ছাত্রলীগকে সজাগ থাকতে হবে।’

স্বেচ্ছাসেবামূলক ও সামাজিক কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা আপামর জনসাধারণের আস্থা ও ভালোবাসা অর্জনের লক্ষ্যে কাজ করবে বলেও তিনি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, ‘সকলকে, বিশেষ করে তরুণ-তরুণীদের পড়াশুনা ও জ্ঞান অর্জনের দিকে মনোনিবেশ করতে হবে। সর্বোপরি আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের যাতে জনগণ ভালোবাসা ও শ্রদ্ধার চোখে দেখে সেভাবে চলাফেরা করতে হবে।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত বক্তব্যের বিপরীতে উগ্র প্রতিক্রিয়া দেখানোর পরিবর্তে তথ্য-প্রমাণ ও যুক্তি দিয়ে মোকাবিলার পরামর্শ দেন তিনি। কোনো ব্যক্তি বা মহল উসকানিমূলক কর্মকাণ্ড করলে নিজেরা প্রতিক্রিয়া না দেখিয়ে ওই বিষয়ে সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বকে অবহিত করতেও আহ্বান জানান তিনি।

এ ছাড়া কোনো দুর্নীতি, অন্যায়-অবিচার দৃষ্টিগোচর হলে আইনি প্রতিকার বা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তাও নিতে বলেন সালমান এফ রহমান। ভাল কাজে সব সময় পাশে অাছেন এবং থাকবেন বলেলে খোলা চিঠির শেষে তিনি একথা বলেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 40 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com