‘সিঙ্গেল মাদার হয়েও আম্মু আমাকে সমর্থন দিয়েছেন’

Print

ঈদুল আজহা মানে যতটা উৎসব, ততোধিক সেক্রিফাইসের গল্প। প্রিয় পশু কোরবানির মধ্যদিয়ে সারা বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায় এই উৎসব পালন করে। অনেকটা এই ভাবধারাকে সামনে রেখে এই ঈদে আমরা তারকাদের কাছে জানবার চেষ্টা করেছি- তাদের জীবনে ঘটে যাওয়া সেক্রিফাইস বা আত্মত্যাগের কিছু স্মৃতি। যে ত্যাগের বিনিময়ে তাদের অনেকেই হয়েছেন আজকের আলোকিত তারকা। জেনে নিন দেশের প্রথম ইউটিউবার সংগীতশিল্পী জেফার রহমানের বয়ানে তার জীবনের কিছু সেক্রিফাইস-

আমাকে বলা হয় দেশের প্রথম ইউটিউব বেইজড গায়িকা, মানে ইউটিউবার। পরিকল্পিতভাবে না হলেও, এটা কেমন করে যেন হয়ে গেছে।

একদিন মনে হলো দেশের বাইরে সবাই কাভার সং করে, কিন্তু আমাদের দেশে এখনও কেউ শুরু করলো না। তাই প্রথমে একটা গানের কোরাস গেয়ে বাসায় আর বন্ধুদের শোনালাম। সবাই বেশ প্রশংসা করলেন। সাহস করে সেটি ইউটিউবে আপলোড করলাম। এভাবেই আমার ইউটিউবে কাজ করা শুরু।

তবে সেখানেও যে আমি সময় ধরে ধরে কাজ করেছি, তা নয়।

আমি কখনোই ইউটিউবে ধারাবাহিকভাবে কাজ করে যাইনি। আমি যখন গান করি, তখন সেটা ইউটিউবে দেই।

মাঝে গ্রেতে চাকরিতে ঢুকেছিলাম, সেটারও বিরতি ছিল।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 9 বার)


Print
bdsaradin24.com