সিরাজগঞ্জে বাল্যবিয়ে বন্ধে এসিল্যান্ডের সেঞ্চুরি

Print

সিরাজগঞ্জে দায়িত্ব পালনের ১৪ মাসে বাল্যবিয়ে বন্ধে সেঞ্চুরি করে রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আনিসুর রহমান।

এসডিজির লক্ষ্যমাত্রার টার্গেটগুলোর অন্যতম বাল্যবিয়ে বন্ধে তার এ অর্জন ইতিবাচকভাবে দেখছে জেলা প্রশাসনসহ সিরাজগঞ্জবাসী।

তার এ কৃতিত্বের জন্য ২৩ জুন আন্তর্জাতিক পাবলিক সার্ভিস দিবসে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করেছেন সদ্য বিদায়ী জেলা প্রশাসক কামরুন নাহার সিদ্দীকা।

আনিসুর রহমান যেখানেই দায়িত্বে ছিলেন সেখানেই নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে গেছেন। ২০১৪ সালের আগস্ট থেকে ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত যশোরে সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে তার ভেজাল বিরোধী অভিযান পুরো দক্ষিণ বঙ্গে ব্যাপক সাড়া ফেলে।

এ সময় তার তৎপরতায় ভেজাল কারবারীরা নিয়ম মানতে বাধ্য হন। এজন্য যশোরের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে তিনি প্রশংসা কুড়িয়েছেন।

সোমবার সকালে ২০১৭ সালের শেষ দিকে তিনি বদলি হয়ে আসেন যমুনা নদীবিধৌত সিরাজগঞ্জের চৌহালী উপজেলায়। তিনি সেখানে সহকারী কমিশনারের (ভূমি) পাশাপাশি ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

এ সময় তিনি বিভিন্ন অনিয়মের বিরুদ্ধে মাঠে নামেন। দুটি ইলিশ প্রজনন মৌসুমে তিনি নিয়ম ভঙ্গকারী ১২৪ জনকে জেল জরিমানা করেন। চৌহালী উপজেলা থেকে সব পাবলিক পরীক্ষায় নকল পুরোপুরি দূর করেছিলেন। শুধু তাই নয়, চৌহালীতে ৭ মাসে ৩৪টি বাল্যবিয়ে বন্ধ করেন তিনি।

এরপর বদলি হয়ে আসেন সদর উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে। এখানে সাড়ে ৬ মাসে ৬৭টি বাল্যবিয়ে বন্ধ করেন। তিনি ইতিমধ্যে একদিনে ৭টি বাল্যবিয়ে বন্ধ করে অনন্য রেকর্ড সৃষ্টি করেছেন।

এর মধ্যে পৌরসভায় ১৩টি, ইউনিয়ন পর্যায়ে খোকশাবাড়ীতে ৩টি, সয়দাবাদে ১২টি, কালিয়া হরিপুরে ১১টি, বাগবাটিতে ৯টি, রতনকান্দিতে ১০টি, বহুলীতে ৫টি, শিয়ালকোলে ২টি, ছোনগাছায় ১টি ও কাওয়াখোলায় ১টি বাল্যবিয়ে বন্ধ করা হয়।

এদের মধ্যে তৃতীয় শ্রেণির ১ জন, পঞ্চম শ্রেণির ৫ জন, ষষ্ঠ শ্রেণির ৩ জন, সপ্তম শ্রেণির ৪ জন, অষ্টম শ্রেণির ২৫ জন, নবম শ্রেণির ১৫ জন ও দশম শ্রেণির ১৩ জন ছাত্রী রয়েছে।

এ সময়ে বাল্যবিয়ে বন্ধে সদর উপজেলায় ৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। অনেক ক্ষেত্রে বর ও কনের বাবার কাছ থেকে সন্তানরা প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত তাদের বিয়ে দেবেন না মর্মে মুচলেকা নেয়া হয়।

সিরাজগঞ্জের এ দুটি উপজেলায় মোট ১০১টি বাল্যবিয়ে নিজে উপস্থিত হয়ে বন্ধ করেছেন এ কর্মকর্তা।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 21 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com