সিলেটে ভাসুরের নির্যাতনের শিকার গৃহবধু আছিয়া

Print

 

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি ::

সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের বড়উধা গ্রামের ছাদ উদ্দিনের স্ত্রী আছিয়া বেগম (৩০) ভাসুর জয়নুর রহমান জয়নাল কর্তৃক গরম পানি ঢেলে শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ১০ জুলাই মঙ্গলবার বেলা ২ ঘটিকার সময় শশুরালয়ে ভাসুর কর্তৃক শারীরিক নির্যাতনের শিকার হন আছিয়া। বর্তমানে তিনি সিলেট এম.এ.জি ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সূত্রে প্রকাশঃ দোকান বাকির টাকাসহ বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়া বিবাদীদের সাথে পূর্ব মনোমালিন্য ছিল ভিকটিম ও তার পরিবারের, এরই সূত্র ধরে বিবাদীরা ঘটনার তারিখ ও সময়ে আছিয়ার স্বামীর সাথে কথা কাটাকাটি শুরু করে। এক পর্যায়ে বিবাদীরা উত্তেজিত হয়ে আছিয়ার ভাসুর জয়নুর রহমান জয়নাল ও তার স্ত্রী রাজিয়া বেগম উভয়ে মিলে পরিকল্পিত ভাবে আছিয়ার স্বামী ছাদ উদ্দিনকে লোহার রড দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে। আছিয়া তার স্বামীকে রক্ষা করতে এগিয়ে আসলে আছিয়ার উপর ও বিবাদীরা ঝাপিয়ে পড়েন। ১নং বিবাদী জয়নুর লোহার রড দিয়ে প্রাণ নাশের উদ্দেশ্যে আছিয়ার মাথায় আঘাত করলে সে বাম হাত দিয়ে প্রতিহত করে। ফলে আছিয়ার বাম হাত জখম হয়। তদুপরি বিবাদীরা ক্ষান্ত হয়নি ভাসুর জয়নুর তার ঘর থেকে গরম পানি এনে আছিয়ার শরীরে ঢেলে দেয়। এতে গরম পানির ছিটা পড়ে আছিয়ার স্বামী ছাদ উদ্দিন ও আহত হন। এরপর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন গৃহবধু আছিয়াকে মারত্নক আহত অবস্থায় বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। বিয়ানীবাজার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে তাকে দ্রুত সিলেট এম.এ.জি ওসমানী হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। আছিয়ার অবস্থা আশংকাজনক ।

অনুসন্ধানে জানা যায়- ছোটদেশ গ্রামের আছিয়ার পিতা আব্দুল মালিক ৫ মেয়ে ও ১ ছেলের জনক। আর্থিকভাবে অসচ্ছল থাকায় ৫ মেয়ে বিয়ে সাদী পরিবারের ভরন পোষণ টানপোড়নের সংসার ছিল আব্দুল মালিকের। ৫ মেয়ের মধ্যে আছিয়া দ্বিতীয়। ১২ বছর পূর্বে বিয়ানীবাজার উপজেলার মুড়িয়া ইউনিয়নের বড়উধা গ্রামের মৃত আবদুর রহিমের ছেলে ছাদ উদ্দিন (আপন ভাগনার) কাছে আছিয়ার বিবাহ দেন আব্দুল মালিক। ভাগনা ছাদ উদ্দিন সহজ সরল প্রকৃতির লোক। তিনি পেশায় পাঞ্জেগানা মসজিদের ইমামতি করেন। ১২ বছর অতিক্রান্তে ১ ছেলে ও ১ মেয়ের জনক হন ছাদ। ছাদ তার উপার্জনের টাকায় পকেট খরচ চলেনা। স্ত্রী , সন্তানদের খরচপাতি বহন করতেন যৌথপরিবারের কর্তা জয়নুর উরফের জয়নাল। সেই সুবাদে জয়নুর পরিবারে দাপট দেখান । তার (ভাসুরের) ছটাবরদারি ও নির্যাতন নিপিড়নে ২ সন্তানের জননী আছিয়া পিত্রালয়ে এসে অনাহারে অর্ধাহারে থাকার চেয়ে শশুরালয়ে নির্যাতন সহ্য করেও বসবাস করতে থাকেন।

এই ১২ বছরে আছিয়া কতবার ভাসুর জয়নুর ও তার স্ত্রী কর্তৃক নির্যাতিত হয়েছেন তার হিসেব নেই এমনটিই জানালেন আছিয়া। আছিয়ার চাচাতো ভাই আব্দুলল্লাহ’র সাথে ঘটনার মুল কারণ সম্মর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন- ছাদ উদ্দিনের বোন ফাতিমা। আড়াই বছর পূর্বে বিয়ে হয়েছিল শাহবাজপুরের এক প্রাইমারী স্কুল শিক্ষকের সাথে। ফাতিমার উগ্র মেজাজ আর বেপরোয়া চলার কারণে ফাতিমার বিচ্ছেদ ঘটে। ফাতিমা চলে আসে পিত্রালয়ে। শুরু হয় আছিয়ার সাথে তার নিয়মিত ঠান্ড্-াগরম বাক বিতন্ডা। তাও সহ্য করে চলেন আছিয়া কারণ আছিয়ার স্বামী ভয় পান ভাসুর জয়নুরকে। আব্দুল্লাহ জানান এই ননদ (জয়নুরের বোন) ভাসুর ও জালের (জয়নুরের স্ত্রী) নির্যাতন সহ্য করে ২ সন্তানের মায়া ত্যাগ করতে না পেরে অবশেষে স্বামীকে নিয়ে পৃথক হন আছিয়া তবুও তাদের নির্যাতন থেকে রেহাই পায়নি সে। গরম পানি আর লোহার রডে ওসমানী মেডিকেলের বেডই এখন তার আবাসস্থল।

আছিয়ার স্বামী ছাদ উদ্দিনকে বাড়ীতে না পেয়ে মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে- সাংবাদিক পরিচয় জেনে তিনি মুখ খুলতে নারাজ। শুধু গরম পানির ছিটা পড়ে তার স্ত্রী ও তিনি আহত হন বলে স্বীকার করেন।

জানতে চাইলে মুড়িয়া ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য নাজিম উদ্দিন বলেন ‘ইতিপূর্বে বার বার এই মহিলার উপর ভাসুর কর্তৃক নির্যাতনের খবর শুনেছি এমনকি স্থানীয় মুরব্বীয়ানরা এ বিষয়ে শালিস বৈঠক করে উক্ত বিবাদীর কাছ থেকে ভবিষ্যতে এ রকম নির্যাতন করবেনা বলে স্টাপে মুচলেকা ও নিয়েছেন’। এ ব্যাপারে বিয়ানীবাজার থানার এস.আই শাহ আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন- অভিযোগ পেয়েছি। মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 127 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com