সুস্থ মাড়ি ফেরত্‍ পাওয়ার সহজ উপায়

Print

 

১. ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার খান বেশি করে

জানেন, বেশিরভাগ রোগ আমাদের দেহে আসে খাবারের মাধ্যমেই। আবার এই খাবারের মাধ্যমেই প্রয়োজনীয় সব উপাদান সংগ্রহ করে আমাদের শরীর। ফলে খাওয়া-দাওয়া ঠিক থাকতে, নিশ্চিতভাবে সুস্থ থাকবেন। তাই দাঁতকে সু্স্থ রাখতে বেশি ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার খান।

যেমন – কাঁচা দুধ, চিজ, টকদই, সার্ডিন মাছ, আমন্ড বাদাম, বাঁধাকপি, ব্রোকোলি, জলে জন্মানো কলমিশাক, ঢ্যাঁড়শ।

২. দাঁত পরিষ্কার ব্যবহার্য জিনিস সময় মতো বদলান

দাঁত মাজার ব্রাশ, জীবছোলা, টুথপেস্ট, লিস্টেরিন, ফ্লস সময় মতো বদলান। বেশিদিন এক জিনিস বা এক্সপেয়ারি শেষ হয়ে যাওয়া জিনিসে ব্যাকটেরিয়া জন্মায়। আর সেগুলি মাড়ির ক্ষতি করে।

কি করবেন?

দু-তিন মাস অন্তর টুথব্রাশ বদলান, ২-৩ বছরের পুরনো মাউথওয়াশ ব্যবহার করবেন না, ২ বছরের পুরনো টুথপেস্ট একদম না, দাঁত পরিষ্কারের ফ্লস রং হারালেই ফেলে দিন, আর জীবছোলা ২ মাসের বেশি ব্যবহার করবেন না।

৩. মাড়ির ক্ষয় আটকান

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে সবাই অবহেলা করতে শুরু করে। আর তাতে মাড়ি ক্ষইতে শুরু করে। দাঁতের যে অংশটা বেরিয়ে আসে সেটা কেমন যেন হলুদ একটা স্তরে ঢাকা পড়ে যায়। চেষ্টা করেও উঠছে না, অথচ কেমন বিচ্ছিরি লাগে। ফলে হাসতে চান না সবার সামনে।

কি করবেন ?

এক-দু’ফোঁটা ইউক্যালিপ্টাস তেল এক টেবিল চামচ জলের সঙ্গে মিশিয়ে দাঁতে ঘষুণ আঙুল দিয়ে। ছোটো টুথ ব্রাশ ব্যবহার করুন দাঁত মাজতে। অ্যালোভেরা দেওয়া টুথপেস্ট আর মাউথওয়াশ ব্যবহার করুন। লেবুর রস ও অলিভ মিশিয়ে দাঁতে ঘষুণ, মাড়ি সুস্থ হয়ে উঠবে ও উপকারও পাবেন। আর সকালে গ্রিন টি খাওয়া অভ্যেস করুন, এতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকে, যা মাড়ির ক্ষয়রোধ করে।

৪. তেল দিয়ে কুলি করুন

নারকেল তেল মুখের জন্য খুব উপকারী। সকালে উঠে মুখে কাঁচা নারকেল তেল নিয়ে দশ-পনেরো মিনিট মতো কুলি করুন। খেয়ে ফেলবেন না ওটা আবার। এরপর, যেমন ব্রাশ করেন, সেইরকম পেস্ট দিয়ে দাঁত মাজুন ঠিক মতো।

৫. ইয়েরো তেল

এক ধরণের উগ্র গন্ধওয়ালা ফুল। কিন্তু, এর ঔযধী গুণ অনেক। ফুল অথবা ডাঁটা থেঁতো করে ব্যবহার করতে পারেন। নাহলে বাজারে তেল কিনতে পাওয়া যায়। তেল বা নিজের তৈরি পেস্ট দাঁতে আঙুল দিয়ে ম্যাসাজ করুন। তারপর জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন মুখ। দেখবেন উপকার পাবেন।

৬. দাঁতের যত্ন নিন

সময় নেই জানি। কিন্তু, সময় বের করতে হবে। কারণ, আপনার ডাক্তারই বলতে পারবেন, আপনার মাড়ি কি অবস্থায় আছে। তাই ছয় মাস অন্তর রুটিন চেকআপ জরুরি।

দাঁত ঠিক মতো মাজুন। খাবার পর টুথ পিক ও ফ্লস ব্যবহার করুন দাঁতের ফাকে আটকে থাকা খাবারকে সঙ্গে সঙ্গে বের করে দিতে। মাড়ির ফাঁকে পচতে দেওয়া চলবে না। থুতুতে মিশে আরও ব্যাকটেরিয়া তৈরি করে মুখে গন্ধ ছড়াবে। আর হাল্কা মিষ্টি খেতে পারেন। কিন্তু, জল দিয়ে বারবার মুখ পরিষ্কার রাখুন। জল খাওয়ার অভ্যাসটা থাকা দরকার। (সংগ্রহিত)

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 70 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com