স্কুলছাত্রীকে অপহরণের মামলায় ১৪ বছর কারাদণ্ড

Print

সালেকিন মিয়া সাগর,চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার মেমনগর গ্রামে এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণ মামলায় আসামি টুটুল হোসেকে (২৪) ১৪ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক জিয়া হায়দার এ রায় প্রদান করেন।

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত টুটুল হোসেন দামুড়হুদা উপজেলার ছয়ঘরিয়া গ্রামের নওশাদ আলীর ছেলে।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৪ সালের ৮ই আগষ্ট সকালে মেমনগর বিডি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার পথে স্কুলছাত্রী সবেদা খাতুনকে মুখ বেধে একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় কয়েকজন যুবক। এরপর থেকে ওই স্কুল ছাত্রীর খোঁজ না পাওয়ায় একই বছরের ১২ আগষ্ট তার পিতা বাদী হয়ে দামুড়হুদা মডেল থানায় একটি অপহরণ মামলা দায়ের করা হয়। মামলায় টুটলকে প্রধান করে ৪ জনকে আসামি হিসেবে উল্লেখ করা হয়। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রধান আসামি টুটুলকে আটক ও অপহৃত স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে।

দামুড়হুদা থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক (এসআই) তোবারেক হোসেন তদন্ত শেষে ৪ জন আসামির মধ্যে দুইজনকে এজাহার নামীয় করে ওই বছরের ২৮ অক্টোবর আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়। মামলার অপর দুই আসামির ঘটনার সাথে সম্পৃক্ততা না থাকায় তাদেরকে অব্যহতি দেয়া হয়।

এরপর দীর্ঘ তদন্ত ও স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে এ মামলার প্রধান আসামি টুটুল হোসেনকে ১৪ বছরের কারাদণ্ডাদেশ ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও দুই মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 88 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com