স্টেম সেল থেরাপিতে শারীরিকভাবে পরিণতি হতে পারে ভয়াবহ!

Print

সৃষ্টির শুরু থেকে মানুষ নানা জরা অসুখকে মোকাবেলা করে আসছে। প্রাকৃতিক উপায়ে নিরাময় প্রথম চালু হয় নানা ভেষজগুণ সমৃদ্ধ গাছ-গাছালী লতাপাতা দিয়ে।

সময়ের পরিক্রমায় কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই চিকিৎসা ব্যর্থ হয়। সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব হিসাবে দমে যাওয়ার পাত্র নয় মানুষ।

গবেষণার মাধ্যমে ওষুধ আবিষ্কার করে তারা। যার ফলে অনেক ক্ষেত্রে একেবারে সুনির্দিষ্ট চিকিৎসা প্রদান সম্ভব হয়। কিন্তু এমন অনেক রোগ রয়েছে যাতে ওষুধও ঠিক মত কাজ করে না। কীভাবে এর থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যায় তা গবেষণার মাধ্যমে বেরিয়ে আসে Stem Cell, Gene therapy সহ অনেক কিছুই। ধারণা করা হচ্ছে আগামী শতক চলবে এইগুলো দিয়ে।

এদের যেমন অবিশ্বাস্য কার্যকারিতা রয়েছে তেমনি রয়েছে ক্ষতিকর দিকও, অনেকটা দুই ধারী তলোয়ারের মত।তাই এখনও কেউ পরিষ্কার করে বলতে পারেনি এইগুলোর মাধ্যমে চিকিৎসায় শুধু সফলতাই আসবে, অপকার হওয়ার আশংকা নেই।

Gene therapy আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে এখনও বলতে গেলে অসম্ভব হলেও Stem Cell স্বল্প আঙ্গিকে চালু হয়েছে। প্রাতিষ্ঠানিক গবেষণা যেমন চলমান সাথে ব্যবসায়িকভাবেও এর ব্যবহার চলছে।

গবেষণায় যারা সমৃদ্ধ সেসব দেশের তুলনায় আমাদের দেশের মাঝে তফাৎ হল- আমাদের দেশে রোগীর নিজের শরীর থেকে সংগ্রহ করে পুনরায় তা রোগীর শরীরে প্রবেশ করানো হয়। এর অর্থ আমাদের দেশে যে সেল ইউজ করা হয় তা প্রাপ্ত বয়স্ক সেল, যার আসলে আদি সেলের/ কোষের মত গুণাবলী সমৃদ্ধ নয়।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 33 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com