স্বামী-স্ত্রী রঙ্গ

Print

আবুলের স্ত্রী হাসিনা বেগম ছিলেন একেবারে সত্য যুগের সতী সাবিত্রীর মত পতিপরায়ণা | বিয়ের পর থেকেই স্বামী বাড়ি না ফেরা পর্যন্ত তিনি ভাত খেতেন না | সারা মহল্লার মহিলারা হাসিনা বেগমকে খুব শ্রদ্ধা করতেন | তাদের স্বামীরাও আবুলের স্ত্রীভাগ্য দেখে তাকে একপ্রকার হিংসেই করতেন | সবাই হাসিনা বেগমকে বলতেন : ” আপনি মহান , আপনি হলেন পতিব্রতা , সতী …. সাধ্বী , আপনি হলেন বাঙালী সংস্কৃতির তথা ঐতিহ্য আর পরম্পরার পূজারিণী | আপনি আমাদের প্রেরণা … আমাদের গৌরব …. কলিযুগের সাক্ষাৎ দেবী স্বরূপা |”
একদিন এক মহিলা সাহস করে তাকে জিজ্ঞেস করলেন :
” আপনি দিনের পর দিন এত বড় তপস্যা কিভাবে করেন ?”
হাসিনা বেগম গম্ভীর কণ্ঠে জবাব দিলেন : ” সেটা আমার মজবুরি রে বোন | আমার স্বামী ঘরে এসে রান্না করার পর তবেই না আমি খাই |”

মজনু আর লাইলি বছর তিনেক হল প্রেম করে বিয়ে করেছে | দুজন পরস্পরকে খুব ভালোবাসে ও বিশ্বাস করে | স্বামীকে লুকিয়ে লাইলি একটা নতুন সিম এনেছে | সন্ধ্যাবেলা যখন মজনু বাড়ি এল , তখন তাকে সারপ্রাইজ দেবে ভেবে লাইলি রান্নাঘরে গিয়ে ফোন করে চাপা স্বরে বলল : ” হ্যালো …”
মজনু জবাব দিল : ” আমি তোমায় পরে কল ব্যাক করছি | এখন কথা বলা যাবে না | পেত্নীটা রান্নাঘরে ঢুকেছে , এখনই আমার জন্য চা নিয়ে এ ঘরে চলে আসবে |”

এক মহিলা কেনাকাটা করে ক্যাশ কাউন্টারের সামনে ব্যাগ খুলতেই ক্যাশ্যারের নজরে এলো টিভি রিমোট। কৌতুহল বশত তিনি জানতে চাইলেন, ব্যাগে রিমোট কি সব সময় থাকে?
মহিলা: নাঃ, মাঝে সাঝে। আজ আমার কত্তাটি IPL ফাইনাল দেখবে বলে শপিং এ এলোনা, তাই জব্দ করতে রিমোট ব্যাগে।

শিক্ষা ১) বৌ এর তুচ্ছ হলেও তাচ্ছিল‍্যে বিপদ!

ক্যাশিয়ার এর পর হাসতে হাসতে কার্ডটি টি মহিলা কে ফেরৎ দিতেই-
মহিলাঃ এটা কি হলো?
ক্যাশিয়ারঃ আপনার স্বামি কার্ড ব্লক করে দিয়েছেন।

শিক্ষা ২) স্বামীর শখও সম্মানযোগ‍্য।

মহিলা ব্যাগ থেকে স্বামীর কার্ড বার করে সোয়াইপ করলেন।

শিক্ষা ৩) বৌ এর লম্বা হাতের সঠিক ধারনা থাকা দরকার।

সোয়াইপ মেশিন জানালো ENTER THE PIN SEND TO YOUR MOBILE

শিক্ষা ৪) বেচারা স্বামী কে বাঁচাতে মেশিনও চেষ্টা করে।

মহিলা মুচকি হেসে ব্যাগ থেকে স্বামীর মোবাইলটা বের করলো। এটা সে এনেছিল যাতে শপিং এর মাঝে স্বামী বিরক্ত না করে। অবশেষে সব কেনাকাটা করে তৃপ্ত মহিলা ঘরে ফিরলো…

শিক্ষা ৫) স্মার্ট মহিলাদের সাথে টক্কর দিওনা।

এবার গল্পের শেষ
মহিলা দেখলো গ‍্যারেজে গাড়ি নেই, দরজায় স্টিকার এ লেখা
“বন্ধুর বাড়ি খেলা দেখতে যাচ্ছি , ফিরতে রাত হবে, কোনো দরকার থাকলে কল কোরো।

এবার শেষে
মহিলা ডুপ্লিকেট চাবি দিয়ে দরজা খুলে, ঢুকে, ডিনার সেরে শুয়ে পড়লো।

মাঝ রাতে বাড়ি ফিরে দরজায় স্বামী দেখলো স্টিকার, লেখা আছে…
“গাড়িতেই ঘুমিয়ে পড়ো, বেল বাজিও না তার খোলা আছে, আর দরজায় ধাক্কা দিওনা,
এটা ভদ্র লোকের পাড়া…”

শেষ শিক্ষাঃ
নারীশক্তি হইতে সাবধান…!!

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 196 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com