১৬ হাজার দুর্নীতিবাজ ধ্বংস করতে পারলেই সোনার বাংলা হবে

Print

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) সভাপতি ও সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বাংলাদেশে ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ১৬ হাজার লুটেরা ও দুর্নীতিবাজ রয়েছে। তাদের ধ্বংস করতেই পারলেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা গড়া সম্ভব হবে।

রোববার রাজধানীর প্রেস কাউন্সিলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট শাহবাগ থানা শাখা আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব বলেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, সোনার বাংলা গড়ার পথে একটা বাধা লুটেরা ও দুর্নীতিবাজরা। দেশে ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ১৬ হাজার দুর্নীতিবাজ ও লুটেরা রয়েছে। তারা রাষ্ট্র, রাজনীতি ও অর্থনীতিকে জিম্মী করে রেখেছে। তারা ১৫ আগস্টে মতো ঘরকাটা ইঁদুর। এরা এখন ফসলকাটা ইঁদুর। তাই বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে হলে ১৬ হাজার ঘরকাটা ও ফসলকাটা ইঁদুর ধ্বংস করতে কঠোর হতে হবে। তাহলেই বঙ্গবন্ধুর রক্তের ঋণ শোধ করতে পারব।

তিনি বলেন, অসাম্প্রদায়িকতা ও জাতিয়তাবাদে কোনো আপোস করা যাবে না। ইবলিশের সঙ্গে ঐক্য হয় না। কৌশল করে ইবলিশের সঙ্গে হাত মেলানো যাবে না। রাজনৈতিক মোল্লাদের সঙ্গেও কোনো সম্পর্ক থাকতে পারে না।

১৫ আগস্টের মধ্য দিয়ে খুনীরা বাংলাদেশের জাতি সত্তাকে হত্যা করতে চেয়েছিলো উল্লেখ করে হাসানুল হক ইনু বলেন, ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে পাকিস্তানপন্থার দিকে ঠেলে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল। সংবিধান কাঁটাছেড়া করা হয়েছিল। ৭১’র ঘাতকদের রাজনীতিতে টেনে নিয়ে আসা হয়। তাদের বিভিন্ন জায়গায় প্রতিষ্ঠিত করা হয়। খুনীদের রক্ষা করা হয়। বাংলাদেশে দ্বি-জাতিতত্ত্বের ব্যবস্থা চালু করা হয়। রাজনীতিতে একটি মহাচক্রান্ত করা হয়। এর মূলপরিকল্পনাকারী ছিলো খন্দকার মোস্তাক। ফারুক, রশিদ ও ডালিমরা ছিল জল্লাদ। এর সঙ্গে জিয়াসহ যারা জড়িত ছিল তাদের সম্পের্কে জনগণের ধারণা রয়েছে।

তিনি বলেন, তাই দেশবাসীর জানার অধিকার আছে, বঙ্গবন্ধুকে কারা হত্যা করল। বঙ্গবন্ধুর আপনজনরা কীভাবে তাকে হত্যা করল। এই আপনজনরা বঙ্গবন্ধুর বাসায় থাকত-ঘুমাত। ফারুক, রশিদ ও ডালিমরা সবাই শেখ কামালে ঘনিষ্ট বন্ধু ছিল। এমনকী শেখ কামালের বিয়েতে খন্দকার মোশতাক উকিল বাবা ছিলেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 34 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com