১৮ বছর আগে হারানো ছেলের খোঁজ মিলল ফেসঅ্যাপে

Print

সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেই এখন বয়স্কদের ভিড়। তবে পুরোটাই ভার্চুয়ালি। সকলেই যেন টাইম মেশিনে চেপে সিনিয়র সিটিজেন হয়ে উঠেছেন ফেস অ্যাপের সৌজন্যে।

জনপ্রিয় এই অ্যাপটি ব্যবহার করেই কেউ হয়ে যাচ্ছেন বুড়ো তো কেউ আবার বদলে ফেলছেন নিজের লিঙ্গ! দেখে নিচ্ছেন, বিপরীত লিঙ্গ হলে কেমন দেখতে হত তাকে। কেউ আবার বয়স কমিয়ে ফিরে গিয়েছেন ছোটবেলার দিনগুলিতে।

তবে এমন মজার অ্যাপ যে একটা পরিবারে হাসি ফোটাতে পারবে কে ভেবেছিল! প্রযুক্তির কল্যাণে ১৮ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া ছেলেকে খুঁজে পেল একটি পরিবার।

২০১৭ সালে তৈরি হয়েছিল এই ফেস অ্যাপ। তবে সম্প্রতি এটি বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। মজার এই অ্যাপে নিজেকে নানা লুকে দেখার সুযোগ পাচ্ছেন ইউজাররা।

ঠিক একইরকম প্রযুক্তির সৌজন্যে ১৮ বছর পর নিজের পরিবারের সঙ্গে মিলিত হতে পারলেন ২১ বছরের চিনা যুবক শাই ইউ ওয়েফেং। ২০০১ সালে শিশু অবস্থায় অপহরণ করা হয়েছিল তাকে। তারপর থেকে হাজার চেষ্টা করেও তার সন্ধান পাননি পরিবারের লোকজন। যদিও পুলিশ হাল ছাড়েনি।

সম্প্রতি ওই যুবকের ছবিই মর্ফ করে পোস্ট করে পুলিশ। সেটি দেখেই হারানো ছেলেকে চিনতে পারেন আত্মীয়-পরিজনরা।

পুলিশ জানায়, অভিভাবকদের সঙ্গে ডিএনএ মিলে গিয়েছে শাইয়ের। ১৮ বছর পর পরিবারের হাত ধরে তার বাড়ি ফেরার কাহিনি এখন নেটদুনিয়ায় ভাইরাল।

ফেস অ্যাপের মতোই এআই প্রযুক্তি তৈরি করেছে চিন। একটি শিশুকে ১৮ বছর পর কেমন দেখতে হতে পারে, পুলিশ তা দেখারই চেষ্টা করেছিল এই টেকনলজির মাধ্যমে।

পুলিশ জানায়, শাই প্রথমে বিশ্বাসই করতে চাননি যে ছোটবেলায় তাকে অপহরণ করা হয়েছিল। সেই সময় প্রযুক্তি এত উন্নত ছিল না। শাইকে ফিরে পাওয়া তার পরিবারের কাছে মিরাকলের মতো।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 49 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com