২০ লাখ টাকা ঘুষ না দেয়ায় চার্জশিট বদলে দিলেন পিবিআই কর্মকর্তা

Print

২০ লাখ টাকা ঘুষ না দেয়ায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) পরিদর্শক হারুন অর রশিদের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দেয়ার অভিযোগ উঠেছে।

মৃত ও প্রবাসে থাকা ব্যক্তিদের সাক্ষী বানিয়ে এক হত্যা মামলার অভিযোগপত্র দিয়েছেন পিবিআই পরিদর্শক হারুন, এমন অভিযোগ করেছেন নবীনগর উপজেলার বিদ্যাকুট ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনু মিয়া। রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এসব অভিযোগ করেন তিনি।

২০১৫ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি আল আমিন (২২) নামে এক যুবক নানি শ্বশুরবাড়ি নবীনগর উপজেলার শিবপুরের বাঘাউড়া গ্রামে খুন হন। আল আমিন কসবা উপজেলার খাড়ের ইউনিয়নের সোনারগাঁও গ্রামের জাঙ্গাঙ্গীর আলম চৌধুরীর ছেলে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা জাহাঙ্গীর ১০ জনকে আসামি করে নবীনগর থানায় মামলা করেন। মামলায় নিহতের স্ত্রী ইতি বেগমকে প্রধান, বিদ্যাকুট ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আনু মিয়া ওরফে আব্দুল হান্নান ভূঁইয়াকে ৬ নম্বর ও তার ছেলে ইফতেখার মাহমুদকে নম্বর আসামি করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আনু মিয়া বলেন, সম্পূরক অভিযোগপত্র দেয়ার আগে চলতি বছরের ২১ মার্চ পিবিআই কর্মকর্তা হারুন অর রশিদ আমার কাছে ২০ লাখ টাকা ঘুষ চেয়েছেন। ডিআইজিসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের টাকা দিতে হবে বলে জানান পিবিআই কর্মকর্তা হারুণ। টাকা না দিলে পূর্বের মতো অভিযোগপত্র দিতে পারবেন না বলে আমাকে জানানো হয়।

আনু মিয়া বলেন, এর আগেও পিবিআই কর্মকর্তা আমার পরিবারের কাছ থেকে ৬০ হাজার টাকা ঘুষ নিয়েছেন। ২০ লাখ টাকা ঘুষ না দেয়ায় পিবিআই কর্মকর্তা হারুন মনগড়া আমার বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছেন। অথচ এ হত্যা মামলায় পিবিআইয়ের তদন্তের আগে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) ও গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি) অভিযোগপত্র দেয়। সিআইডি ও ডিবি পুলিশের অভিযোগপত্রে হত্যায় জড়িত যে চারজনের নাম উল্লেখ করেছে, পিবিআই কর্মকর্তা হারুন সেই চারজনকে নির্দোষ উল্লেখ করে অভিযোগপত্র দেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 58 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com