৯০ হাজার ‘সন্ত্রাসমূলক ভিডিও’ সরাল ইউটিউব

Print

‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’–সম্পর্কিত বিষয়বস্তুর বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে ইউটিউব। গুগলের মালিকাধীন ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মটিতে নিয়মিত আপ হওয়া ভিডিওগুলো পর্যালোচনা করে দেখেছে, সন্ত্রাসবাদ ছড়ানোর মতো কনটেন্ট আছে। এরপরই সেগুলো বন্ধ করে দিয়েছে। এ জন্য ইউটিউবের লাখো ডলার ব্যয় হয়েছে।

রয়টার্সের খবরে জানানো হয়, ২০১৯ সালের প্রথম তিন মাসে (জানুয়ারি-মার্চ) ইউটিউব ১০ লাখের বেশি সন্দেহভাজন ভিডিও পর্যালোচনা করে দেখেছে। এর মধ্যে ৯০ হাজার ভিডিও ইউটিউবের সন্ত্রাসবাদবিরোধী নীতিমালা লঙ্ঘন করেছে। তাই এসব ভিডিও সরিয়ে ফেলেছে। এ জন্য লাখো ডলার ব্যয় হয়েছে ইউটিউবের।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে লাইভে থেকে নিউজিল্যান্ডের মসজিদে গুলি চালিয়ে ৫০ জনকে হত্যা করেন এক সন্ত্রাসী। এরপরই ইউটিউব, ফেসবুক, টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটির পক্ষ থেকে কনটেন্ট মুছে ফেলা এবং সন্ত্রাসীরা যেন লাইভ করতে না পারে, তার ব্যবস্থা নিতে বলা হয়। এরপরই হোমল্যান্ড সিকিউরিটির হাউস কমিটির কাছে পাঠানো চিঠিতে গুগল দাবি করেছে, কোম্পানিটি তাদের কন্টেন্ট পর্যালোচনা করার জন্য প্রতিবছর লাখো ডলার ব্যয় করছে। নীতিমালা লঙ্ঘন করে ‘সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড’–সম্পর্কিত ৯০ হাজার ভিডিও ইউটিউব থেকে সরিয়ে দিয়েছে।

বেশ কয়েক বছর ধরেই ফেসবুক, ইউটিউব, টুইটারসহ বিশ্বের বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠাগুলোর বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ ছড়ানো অভিযোগ উঠে আসছিল। অভিযোগ ছিল, এই প্ল্যাটফর্মগুলো সন্ত্রাসবাদ এবং হিংসাত্মকমূলক কন্টেন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ব্যর্থ হয়েছে।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটির পক্ষ থেকে বলা হয়ে, সন্ত্রাসবাদমূলক কন্টেন্ট প্রতিরোধে ইউটিউব, ফেসবুক, টুইটারসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো অনেকটাই ব্যর্থ। এসব প্ল্যাটফর্ম কিন্তু আবার জনগণের জীবনে প্রয়োজনীয় হয়ে উঠছে। এ জন্য জনগণের প্রতি তাদের একটি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। মাধ্যমগুলোকে এটি নিশ্চিত করতে হবে যে নিষ্ঠুর ও সহিংস কন্টেন্টগুলোর বিস্তার বন্ধ করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা তারা করছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin24@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 29 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
bdsaradin24.com