খালেদার নির্বাচন, এখনই ‘শেষ’ বলা কঠিন

Print

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। রায়ে ৫ বছর সাজা হওয়ায় প্রচলিত আইনে তার নির্বাচন করার সুযোগ নেই। খালেদা জিয়ার দল বিএনপির অভিযোগ, তাদের নেত্রীকে আগামী জাতীয় নির্বাচন থেকে দূরে রাখতেই বর্তমান সরকার সাজানো মামলায় কারাদণ্ড দিয়েছে।

দুদকের দায়ের করা এই মামলায় ৮ ফেব্রুয়ারি সংক্ষিপ্ত রায় ঘোষণার পর গত ১৯ ফেব্রুয়ারি পর্যালোচনাসহ পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করেছেন বিশেষ জজ-৫ আদালতের বিচারক ড. আখতারুজ্জামান।

এতে খালেদা জিয়াকে ৫ এবং তারেক রহমানসহ বাকি আসামিদের ১০ বছর করে কারাদণ্ড ও ট্রাস্টের নামে আত্মসাৎ হওয়া ২ কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৪৩ টাকা প্রত্যেককে সমপরিমাণ করে জরিমানা করা হয়েছে।

এর পরের দিন ২০ ফেব্রুয়ারি রায়ের সত্যায়িত কপি নিয়ে হাইকোর্টে সাজার বিরুদ্ধে আপিল করেছেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। একাধিক গ্রাউন্ডে যুক্তি তুলে ধরে তার খালাস এবং জামিন আবেদন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আপিল গ্রহণ করে বিচারিক আদালতে খালেদা জিয়াকে করা অর্থদণ্ড স্থগিতের আদেশ দেন।

একই সঙ্গে এ মামলায় বিচারিক আদালতের সকল নথি আগামী ১৫ দিনের মধ্যে হাইকোর্টে পাঠাতে সংশ্লিষ্ট আদালতকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 133 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ