জাতীয় নির্বাচনের জন্য চূড়ান্ত ৪২ হাজার ভোটকেন্দ্র

Print

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে বলে জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। ভোটের জন্য ৪২ হাজার ভোটকেন্দ্র চূড়ান্ত করা হয়েছে। ব্যালট পেপার ছাপানোর জন্য সরকারি ছাপাখানাগুলোর সঙ্গেও প্রাথমিক আলাপ শেষ। এখন ৭ লাখ ভোট কর্মকর্তার তালিকা তৈরি করছে ইসি।

রাজনীতিতে এখন ভোটের আগমনী। সরকারী দলসহ সংসদে বিরোধী দল ঘোষণা দিয়েই মাঠে নেমে পড়েছে। সাবেক বিরোধী দল আইন আদালত সামাল দেওয়ার পাশাপাশি ভোটের প্রস্তুতিও নিচ্ছে। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১০ কোটি ৪০ লাখ ভোটারের জন্য ভোটকেন্দ্র হবে ৪২ হাজার। অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করছে নির্বাচন কমিশন।

নির্বাচনের বিশাল যজ্ঞে যে কোনো ধরণের রাজনৈতিক পরিস্থিতি মোকাবেলা করে সংবিধান অনুয়ায়ী নির্বাচনের পথে হাঁটা ছাড়া কোন বিকল্প নেই বলে মনে করে ইসি। সাত লাখ ভোটগ্রহণ কর্মকর্তার তালিকা হলেও কারো নামে অভিযোগ উঠলে তার জায়গায় অন্য কাউকে দেওয়ার চিন্তা থেকে তালিকায় ১০ শতাংশ বেশি নাম রাখা হবে।

এর আগে ১৩ মার্চ গাইবান্ধা-২ এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উপনির্বাচন। জুন জুলাইয়ে নির্বাচন হবে পাঁচ সিটি কর্পোরেশনে। এরপর ৩০ অক্টোবর শুরু হবে জাতীয় নির্বাচনের কাউন্ট ডাউন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 356 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ