জিপিএ-৫ পেতে পড়াশুনা করি

Print

আত্মদানের মধ্য দিয়ে বাঙালি জাতি মায়ের ভাষা রক্ষা করে পৃথিবীতে সূচনা করে নতুন এক ইতিহাসের। যাদের রক্তে কেনা বাংলা ভাষা। সেই সালাম, জব্বার ,বরকত, রফিক, শফিকের উত্তরসুরীরা এখনো অন্ধকারে ভাষা আন্দোলনের প্রশ্নে। শিক্ষকদের সদিচ্ছার অভাবে ইতিহাস চর্চায় এমন ঘাটতি বলে মনে করেন, বিশিষ্টজনরা।

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের খোর্দকোমরপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কাছে এখনও অজানা ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস।

দুই একদিনের মধ্যেই এই শিশুদের ভাষার ইতিহাস জানানো হবে বলে জানালেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক।

গাইবান্ধা সাদুল্লাপুর খোর্দকোমরপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘যেটুকু শেখার ঘাটতি আছে, দু-একদিনের মধ্যে আমরা সেরে নেবো।’

গাইবান্ধা শহরের প্রাণ কেন্দ্রে গড়ে ওঠা সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থীদের কাছেও একই প্রশ্ন। তাদের কাছেও মেলেনি সঠিক উত্তর।

পড়াশোনার চাপে ইতিহাস চর্চার সুযোগ মেলেনা, এমন সরল স্বীকারোক্তি শিক্ষার্থীদের।

রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের আহ্বায়ক কে ছিলেন, ভাষা আন্দোলনের নেতৃত্বে কারা ছিলেন সাংবাদিকের এমন প্রশ্নে শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘ভাইয়া এই মুহূর্তে মনে আসছে না। আমরা পরীক্ষায় জিপিএ ৫ পেতে পড়াশুনা করি। বাইরের পড়ার আর সুযোগ হয় না।’

ইতিহাস চর্চায় শিক্ষক ও পরিবারের অনিচ্ছার কারণে শিক্ষার্থীরা কেবল জিপিএ-পাঁচের পেছনে ছুটছে বলে মনে করেন বিশিষ্টজনরা।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 103 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ