জুতা পায়ে শহীদ মিনারে শিক্ষার্থীরা

Print

বিশ্বের বুকে মাতৃভাষা প্রতিষ্ঠার দাবিতে জীবন দেওয়ার নজির এক মাত্র বাঙ্গালী জাতির।বাংলাভাষা প্রতিষ্ঠার এ দাবিতে রক্তের বিনিময়ে অর্জিত ২১ ফেব্রুয়ারি যা আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। আর সেই সাথে বিশ্বের বুকে স্থান করে নিয়েছে ভাষা ও ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধার প্রতীক শহীদ মিনার।তবুও প্রতিনিয়ত চলেছে শহীদ মিনার অবমাননা। কোথাও কোথাও আড়ালে ঢাকা পড়েছে বাঙ্গালী জাতির এমন গর্বের প্রতীক শহীদ মিনার।

এমনই ভাবে শহীদ মিনার অবমাননার ঘটনা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) প্রতিদিনই চোখে পড়ার মত। এর কারণ হিসেবে কারো কাছে জবি শহীদ মিনারের বিকৃত আকৃতি দায়ি আবার কারো কাছে গাছের ছাঁয়ায় আড়াল হয়ে থাকাও মুল কারণ।

কয়েকদিনে সরেজমিনে দেখা যায়, বিভিন্ন বিভাগের গুচ্ছ গুচ্ছ হয়ে শিক্ষার্থীরা জুতা পায়ে শহীদ মিনারে বসে আড্ডা দিচ্ছেন। আবার কেউ কেউ এটাকে শহীদ মিনার নয় বরং অবসরে বসে থাকার জন্য জবির ভেতরে একটি স্থাপত্য মনে করছেন।

জবির ১২তম ব্যাচের কয়েকজন শিক্ষার্থীকে জুতা পায়ে আড্ডা দেওয়ার সময় তাদের কাছে এর কারণ জানতে চাইলে তারা বলেন, আমরা জানতামই না যে এটা কোন শহীদ মিনার।তাছাড়া সবাই দেখতাম জুতা পড়েই উপরে উঠে বসে থাকতো। আমরাও ভেবেছি এখানে বসে থাকা যায়।

বহিরাগত একজন মধ্যবয়সী নারীকে শহীদ মিনারের উপরে জুতা পায়ে বসে থাকার সময় তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি বুঝতে পারিনি এটা একটা শহীদ মিনার।কারণ গাছের নিচে সুন্দর ভাবে এমন স্থাপত্য যে শহীদ মিনার হতে পারে তা আমার জানা ছিল না।

গবেষকরা বলছেন, বিশ্বের কোন ঐতিহাসিক বা স্থাপত্য নিদর্শন গাছের নিচে থাকার কথা নয়। এসব স্থাপত্য হবে খোলা আকাশের নিচে, সম্পূর্ণ ফাঁকা কোন জায়গায় থাকা বাঞ্ছনীয়।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 139 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ