ঢাকার সেরা হাসপাতাল সোহরাওয়ার্দী

Print

হাসপাতালের শ্রেষ্ঠত্ব নির্ভর করে তার জনবলের দক্ষতা, স্বাস্থ্যসেবা প্রদান ও স্বাস্থ্য তথ্য সংরক্ষণ ব্যবস্থার ওপর। স্বাস্থ্যসেবায় অর্থায়ন, ওষুধপত্র ও প্রযুক্তি এবং নেতৃত্ব ও সুশাসনও এক্ষেত্রে অনেকখানি এগিয়ে রাখে হাসপাতালগুলোকে। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) এসব মানদণ্ডে ২০১৭ সালে ঢাকার সেরা হাসপাতালের স্বীকৃতি পেয়েছে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। যদিও ২০১৫ সালে সেরা হাসপাতালের তকমাটি ছিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের দখলে।

ডব্লিউএইচওর ছয়টি মানদণ্ডের ভিত্তিতে জাতীয় পর্যায়ে মোটা দাগে চারটি শ্রেণীতে সেরা হাসপাতাল বাছাই করেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এগুলো হলো উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, জেলা হাসপাতাল, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও বিশেষায়িত হাসপাতাল। চার শ্রেণীতে সেরা নির্বাচিত হাসপাতালগুলোর মধ্যে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রয়েছে পাঁচটি, জেলা হাসপাতাল পাঁচটি, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল (টারশিয়ারি) তিনটি ও বিশেষায়িত হাসপাতাল একটি। এসব হাসপাতালের নাম গতকাল প্রকাশ করে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ডব্লিউএইচওর মানদণ্ড অনুসরণে মোট ৩০০ নম্বরের ভিত্তিতে তালিকাটি করা হয়েছে। এ নম্বর বরাদ্দ দেয়া হয়েছে তিন ভাগে। অনলাইনে নিয়মিত তথ্য প্রদানের জন্য ১০০, হাসপাতালের কার্যক্রম সরেজমিন পরিদর্শনে ১০০ ও রোগীর সন্তুষ্টি যাচাই জরিপের জন্য বাকি ১০০ নম্বর দেয়া হয়। তবে চূড়ান্ত মূল্যায়নে পরিদর্শনের ক্ষেত্রে বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়েছে।

মেডিকেল কলেজ হাসপাতালগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে ঢাকার শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল। তাদের স্কোর ৩০০-এর মধ্যে ২২০ দশমিক ৯৪। শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া বণিক বার্তাকে বলেন, প্রতিষ্ঠানে কর্মরতদের দায়িত্ব পালনে নিয়মিত উৎসাহ দেয়া হয়। হাসপাতালও পরিদর্শন করা হয় নিয়মিত। সংশ্লিষ্টরা যথাযথ দায়িত্ব পালন করছে কিনা, তা তদারকির জন্য একটি কমিটি রয়েছে। ওই কমিটি সার্বক্ষণিক সব বিষয় নজরদারি করছে। এসবের ফলে ডব্লিউএইচওর যে ছয়টি মানদণ্ড ছিল, তা যথাযথভাবে পরিপালন করা সম্ভব হয়েছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 116 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ