তখন আমরা আরও লাভবান হবো

Print

ক্লোজআপ ওয়ান প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর থেকেই সংগীত জগতে নিয়মিত হন মৌসুমী আক্তার সালমা। এরপর ধারাবাহিকভাবে বেশ কিছু একক অ্যালবাম প্রকাশ করেন তিনি। এসব অ্যালবামে তার কণ্ঠের অনেক গানই শ্রোতাপ্রিয়তা পায়। অডিও অ্যালবামের বাইরে চলচ্চিত্রের গানেও সফলতার স্বাক্ষর রেখেছেন তিনি। পাশাপাশি স্টেজ শোতে সব থেকে বেশি ব্যস্ত সময় পার করেন সালমা। তবে বিয়ে এবং সন্তান হওয়ার পরবর্তী সময়ে অনেকটাই গানে অনিয়মিত হয়ে পড়েন তিনি।

স্টেজ ও নতুন গান করা কমিয়ে দেন। এদিকে বিভিন্ন বিষয়ে মতবিরোধের কারণে বছর দুয়েক আগেই স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হয় সালমার। বর্তমানে একমাত্র মেয়ে স্নেহাকে নিয়েই কাটছে তার সময়। তবে গত এক বছরে সালমা ব্যাপক ব্যস্ত সময়ও পার করছেন গান নিয়ে। স্টেজে এই সময়ে বড় বড় শোগুলোতে অংশ নিয়েছেন তিনি। বেশ কিছু নতুন গানও প্রকাশ হয়েছে তার, যেগুলো শ্রোতারা সাদরে গ্রহণ করেছেন। এর পাশাপাশি তার কিছু মিউজিক ভিডিও প্রকাশ হয়। এসব ভিডিওতে সালমার পারফরমেন্সও প্রশংসিত হয়। বর্তমানে এ শিল্পী ব্যস্ত সময় পার করছেন অডিও গান ও স্টেজ শো নিয়ে। সব মিলিয়ে দিনকাল কেমন কাটছে? উত্তরে সালমা বলেন, আাল্লাহুর রহমতে অনেক ভালো আছি। গান তো রয়েছেই। এর বাইরে পড়াশোনা ও মেয়ে স্নেহাকে নিয়ে আমার সময় কেটে যায় ব্যস্ততার মধ্যে। এখনকার মূল ব্যস্ততা কি নিয়ে? সালমা বলেন, এতদিন তো স্টেজের মৌসুম ছিলো। সারা বছরের চেয়ে এই সময়টায় কয়েকমাস স্টেজের ব্যস্ততা শিল্পীদের বেশি থাকে। আামিও এই সময়ে অনেক শো করেছি। তবে বেছে বেছে করেছি। সব ধরনের শো আমি করি না। একটু বড় আয়োজনের শোগুলোই কেবল করি। স্টেজ ব্যস্ততাতো এখন কমেছে? সালমা বলেন, কিছুটা কমেছে। সামনে আরও কমবে। তবে তারপরও দেশে-বিদেশের শো নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হবে। আমার আবার লন্ডনে শো করতে যাওয়ার কথা রয়েছে সামনে। এক সপ্তাহের সফরে সেখানে যাবো। দুটি শোতে অংশ নেবো। এর বাইরেও আরও দু-একটি দেশে শো করতে যাওয়ার কথা চলছে। ব্যাটে বলে মিললে হয়তো করবো। আর নতুন গানের কি খবর? সালমা বলেন, আসলে ঠিক করেছি অনেক গান করবো না। বেছে ভালো মানের গানগুলো করবো শুধু। কথা, সুর ও সংগীতায়োজন পছন্দ হলে তবেই সেই গানে কন্ঠ দেবো। আর সঙ্গে থাকবে মিউজিক ভিডিও। কারণ গান শোনার পাশাপাশি এখন দেখারও বিষয়। চলতি বছর আমার বেশ কিছু গান আসবে। বছরের বিভিন্ন সময়ে এ গানগুলো প্রকাশ করবো। এই সময়ে গানের অবস্থা কেমন মনে হচ্ছে? চলতি সময়ের একজন শিল্পী হিসেবে কি মনে হয়? সালমা বলেন, আমারতো মনে হয় ভালো অবস্থা এখন। কারণ আগের মতো আর নিজের গানের স্বত্ব কোম্পানিকে দিয়ে দিতে হচ্ছে না। নিজের গানের স্বত্ব রেখে আমি গান প্রকাশ করতে পারছি। এটা শিল্পীদের জন্য একটি ইতিবাচক দিক। তাহলে কি ডিজিটালি গান প্রকাশটা ইতিবাচক ভূমিকা রাখছে শিল্পীদের ক্ষেত্রে? সালমা বলেন, আমিতো মনে করি ডিজিটালি গান প্রকাশ শিল্পীদের জন্য ইতিবাচক। কারণ আগে একটি অ্যালবামের ১০টি গান করলে সেটা কোম্পানিকে লিখে দিয়ে দিতে হতো এককালীন অর্থের বিনিময়ে। এখন সেটা না করলেও হয়। তাছাড়া সারা জীবন গানের স্বত্বটা আমার নিজের কাছেই থাকলো। আর এখন গান শোনাটাও অনেক সহজ হয়ে গেছে। আমি মনে করি এ ধারায় যখন আরও অভ্যস্ত হয়ে যাবো তখন আমরা আরও লাভবান হবো।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 127 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ