ভারি ব্যাগের জন্য যে ক্ষতি হচ্ছে আপনার সন্তানের

Print
বর্তমানে যেন একটা নিয়ম হয়ে দাঁড়িয়েছে বাচ্চাদের প্রতিযোগিতামূলক পড়াশোনা নিয়ে। কিন্ডারর্গাডেন, ইংলিশ মিডিয়াম, বাঙলা মিডিয়াম যেটাই হোক না কেনো বাচ্চাদের ওজন ও বয়সের তুলনায় তাদের বই খাতা বেশি হয়ে থাকে। এই বই খাতার বেশি অংশ তাকে স্কুলে নিয়ে যেতে হয়। ব্যাগের ভারে ছোট্ট বাচ্চাটি ঝুকে থাকে মাটির সাথে। বাচ্চার ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল হবে এই ভেবে এখন একটু কষ্ট করতে হচ্ছে আপনার বাচ্চাকে তাই না? কিন্তু এটা কি কখনো ভেবে দেখেছেন? শারীরিক ও মানসিকভাবে আপনার সন্তানের কতো বড় ক্ষতি করে দিচ্ছেন? আসুন আজ একটু জেনে নেই ভারি ব্যাগ বহনে আপনার সন্তানের কি কি ক্ষতি আপনি করে দিচ্ছেন।

মজার বিষয় হচ্ছে যাদের দেখে আমরা এতো আধুনিক হবার চেষ্টা করছি তারা বাচ্চাদের পড়াশোনার জন্য এসব নিয়ম পালন করেন না। লন্ডন আমেরিকায় কিন্তু বাচ্চাদের পড়ার ব্যাপারে বই খাতা সংক্রান্ত এতো চাপ বা নিয়ম নেই। যেটা শুধু আমাদের দেশেই বেশি হচ্ছে।

শতকরা ৬০ ভাগ ভারি ব্যাগ বহনকারী স্কুল শিক্ষার্থীরই পরবর্তীতে পিঠের নানা সমস্যা হয়। এসব সমস্যার মধ্যে রয়েছে মেরুদণ্ড ও মাংসপেশির সমস্যা, ঘাড় ব্যথা ও পিঠের নানা সমস্যা।

শিশুদের পিঠ বেশি ভারি বোঝা বহনের উপযুক্ত নয়। এ কারণে তাদের ১৮ বছর বয়সের আগ পর্যন্ত ভারি বোঝা বহন করা উচিত নয়। এটি নানা স্বাস্থ্যগত সমস্যাও তৈরি করতে পারে।

কাঁধে ব্যাগ বহন একটি ভুল প্র্যাকটিস। এতে মাংসপেশি শক্তি হারায়। এক্ষেত্রে মেরুদণ্ড উল্টোদিকে ঝুঁকে এবং মাঝখানের অংশে চাপ সৃষ্টি করে। এতে ভারসাম্যহীনতা সৃষ্টি হয়, যা মাংসপেশির নানা সমস্যা সৃষ্টি করে।

তিনি আরো জানান, ভারী ব্যাকপ্যাক ঘাড়ের মাংসপেশিতে টান সৃষ্টি করে। এতে মাথাব্যথাসহ ঘাড় ব্যথা ও পিঠের নিচের অংশে ব্যথা তৈরি করতে পারে। এছাড়া এটি অনেক সময় বাহুর ব্যথারও কারণ হয়।

কয়েকটি পরামর্শ:
শিশুকে বেশি করে প্রোটিন, ভিটামিন ডি, ক্যালসিয়াম ইত্যাদি খাবার খেতে দিন।  খেলাধুলার মতো শারীরিক কার্যক্রমে নিয়মিত অংশগ্রহণ করতে দিন। স্কুলে যাওয়ার সময় বাচ্চার ব্যাগ বড় কেউ বহন করুন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 160 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ