যা দিয়েছিলেন হাথুরু, এক সিরিজেই নিয়ে গেলেন সব

Print

চন্ডিকা হাথুরুসিংহে এমন এক সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের দায়িত্ব নিয়েছিলেন, যখন ক্রমাগত হারের বৃত্তেই বন্দী থাকতে হচ্ছিল মুশফিকুর রহীমের দলকে। ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে হংকংয়ের মত দলের সঙ্গে পর্যন্ত হারতে হচ্ছিল টিম বাংলাদেশকে। তার আগে এশিয়া কাপে হারতে হয়েছিল আফগানিস্তানের কাছে। সুরেশ রায়নার নেতৃত্বে ভারতের ‘বি’ ক্যাটাগরির দলের সামনেও দাঁড়াতে পারছিল না।

ঘরের মাঠে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর কোচ শেন জার্গেনশেন বিদায় নিলে চন্ডিকা হাথুরুসিংহেকে প্রধান কোচ হিসেবে নিয়োগ দেয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। অচেনা-অজানা এক কোচকে নিয়োগ দেয়ার কারণে কিছুটা সমালোচনাও সইতে হয়েছিল বিসিবিকে। যদিও হাথুরুসিংহের ততদিনে শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের সহকারী কোচ ছাড়াও অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন পর্যায়ে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা হয়ে গিয়েছিল।

কোচ হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর হাথুরুর প্রথম কাজই ছিল বাংলাদেশ দলকে একটি ‘দল’ হিসেবে তৈরি করে তোলা। যদিও হাথুরুর দায়িত্ব নেয়ার পরই বাংলাদেশের কঠিন একটি পরীক্ষা গেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে। নিষেধাজ্ঞার কারণে এই সিরিজে ছিলেন না সাকিব আল হাসান। ৩-০ ব্যবধানে ওয়ানডে, টেস্ট সিরিজে ২-০ ব্যবধানে হারের পর একমাত্র টি-টোয়েন্টিটা ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে।

ওয়েস্ট ইন্ডিজে দুঃস্বপ্নের সিরিজ শেষ করার পর টাইগাররা ফিরে এলো নিজের দেশে। জিম্বাবুয়ে সিরিজ সামনে। হাথুরুর প্রেসক্রিপশনে নেতৃত্বে পরিবর্তন আনা হলো। সাদা পোষাকে মুশফিকুর রহীমকে রেখে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টির দায়িত্ব দেয়া হলো মাশরাফির ঘাড়ে। পরিবর্তনের শুরু সেখান থেকেই।

শুরুতে টেস্ট সিরিজ। জিম্বাবুয়েকে ৩-০ ব্যবধানে বিধ্বস্ত করার পর মাশরাফির নেতৃত্বে ওয়ানডে সিরিজেও ৫-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ করলো। হাথুরুর ক্যারিশমাও যেন শুরু হলো তখন থেকে। এরপর ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপ। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের কঠিন কন্ডিশনে বিশ্বকাপে কেমন করবে বাংলাদেশ? এই আলোচনা যখন তুঙ্গে, তখন বাংলাদেশ দলকে নির্ধারিত সময়ের অনেক আগে অস্ট্রেলিয়া উড়িয়ে নিলেন কোচ হাথুরু।

সেখানে অস্ট্রেলিয়ান কন্ডিশনে নিবিঢ় অনুশীলন করালেন। দলের মধ্যে তৈরি করলেন কঠোর নিয়ম-শৃঙ্খলা। কঠোর নিয়মানুবর্তিতা। দলও পেলো দারুণ সাফল্য। ইংল্যান্ডের মত শক্তিশালী দলকে হারিয়ে নাম লেখালো কোয়ার্টার ফাইনালে। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সেরা সাফল্য। ব্যাক টু ব্যাক সেঞ্চুরি করে সবার মাথা ঘুরিয়ে দিয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সাফল্যের তরি বেয়ে অস্ট্রেলিয়া থেকে নিজ দেশে চলে আসলে টিম বাংলাদেশ। প্রথমেই ঘরের মাঠে পেলো পাকিস্তানকে। টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়ার পর এই একটি মাত্র দলই ছিল বাংলাদেশের সামনে অপারজেয়। সেই পাকিস্তানকে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টিতে হোয়াইটওয়াশ। টেস্ট সিরিজেও সমানভাবে জবাব দিয়েছিল টাইগাররা। এরপর ভারত এবং দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ঐতিহাসিক সিরিজ জয়। ঘরের মাঠে যেন বাংলাদেশ হয়ে উঠেছে যে কারও জন্য বধ্যভূমি। যে কেউ এখানে আসতেই যেন ভয় পেতে শুরু করে। বাঘ তো নিজের গুহায় তার শিকার ধরবেই!

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 107 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ