২২ ফেব্রুয়ারি থেকে সম্পূর্ণ আলাদা শাকিব-অপু

Print

গত বছরের ২২ নভেম্বর অপুকে ডিভোর্স লেটার পাঠান শাকিব। ডিএনসিসির পারিবারিক আদালত সূত্র বলছে, কোনো পক্ষ তালাকের আবেদন করলে আদালতের কাজ হচ্ছে ৯০ দিনের মধ্যে ডেকে সমঝোতার চেষ্টা করা। এরপরও যদি তারা কোনো সমঝোতায় না পৌঁছায় তাহলে ৯০ দিন পর তালাক কার্যকর হয়ে যায়। আর সেই সময়টা শেষ হচ্ছে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি।

এদিন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের সঙ্গে বাংলাদেশের শীর্ষ চলচ্চিত্র নায়ক শাকিব খানের তালাক কার্যকর হচ্ছে। তাদের সম্পর্কে লিখতে হবে ‘সাবেক দম্পতি’।

ডিএনসিসি প্রথম সালিশে অনুপস্থিত ছিলেন শাকিব। এরপর ১২ ফেব্রুয়ারি নতুন দিন নির্ধারণ করে সালিশির। আজ সোমবার সেই দিনটি। কিন্তু এবারও বৈঠকে হাজির থাকার সম্ভাবনা নেই শাকিব খানের। কারণ বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়ায় ‘সুপার হিরো’ ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

এদিকে শাকিব খান বলেন, ‘এটা শেষ হোক, আমি তাই চাই। সবকিছু আইনিভাবে সুষ্ঠু সমাধান হোক, এটাই আমি চাই।’

শাকিব আরো বলেন, ‘বৈবাহিক সম্পর্ক রাখার মতো পারস্পরিক সম্মান আর নেই আমাদের দু’জনের মধ্যে। তাই এ নিয়ে আর কোনোকিছু ভাবতে চাই না। শুভকামনা থাকবে ওর জন্য সবসময়, কারণ ও আমার বাচ্চার মা। শুধু স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ের ইতি ঘটছে আমাদের।’

তিনি জানালেন, তালাক কার্যকর হওয়ার পর অপু বিশ্বাসকে বিয়ের দেনমোহর বাবদ ৭ লাখ টাকা পরিশোধ করবেন শাকিব খান। ছেলের খরচ বাবদ এখন প্রতিমাসে অপুকে ১ লাখ দিবেন। এই টাকা নগদে অথবা চেকে দিবেন তিনি।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 156 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ