লাউড স্পিকারে হুমকি দিচ্ছে মায়ানমারের সৈন্য

Print

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তমব্রু সীমান্তে মায়ানমারের অতিরিক্ত সৈন্য সমাবেশ করছে বলে জানিয়েছে বিজিবি। এসময় তারা অস্ত্রের মহড়াও করছে বলে জানায় বিজিবি। এদিকে মায়ানমার সেনাবাহিনী লাউডস্পিকারে হুমকি দেয়ার পর, আরো প্রায় ৬ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বিজিবি সদর দপ্তর পিলখানায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বাহিনীর অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুজিবুল হক।

জানা যায়, তমব্রু সীমান্তে অতিরিক্ত সেনা ও ভারী অস্ত্রশস্ত্র মোতায়েন করেছে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে পতাকা বৈঠকের আমন্ত্রণ জানানো হলেও তারা তাতে সাড়া দেয়নি বলে জানিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। উল্টো শূন্যরেখায় এসে মায়ানমার সেনারা অস্ত্রের মহড়া করছে। সেখানে অতিরিক্ত সৈন্য সমাবেশ করছে। এর আগে বৈদ্যুতিক তার সংযোগ দিয়েছিল বলেও জানা যায়।

এ নিয়ে তুমব্রু ও ঘুমধুম এলাকায় বসবাসরত মানুষের মাঝে ভীতির সৃষ্টি হয়েছে।

বিজিবি’র এক কর্মকর্তা জানান, সীমান্তজুড়ে মায়ানমার সেনাদের অস্ত্রের মহড়া ও অতিরিক্ত সৈন্য সমাবেশের বিষয়টি জেনেছি। এ ব্যাপারে বিজিবিকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নতুন করে আসা রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ-মায়ানমার সীমান্তের নো ম্যানস ল্যান্ডের অস্থায়ী ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছে বলে জানান ওই কমিউনিটির নেতারা।

গেলো আগস্টে, মায়ানমার সেনাবাহিনীর অভিযানের মুখে শুরুর দিকে বাংলাদেশ আশ্রয় দিতে রাজি না হলে, অনেক রোহিঙ্গা দুই দেশের সীমান্তবর্তী নো ম্যানস ল্যান্ডের অস্থায়ী ক্যাম্পে আশ্রয় নেয়। পরে, বাংলাদেশ সীমান্ত খুলে দিলেও অনেকে সেখানে থেকে যায়।

গেলো কয়েক সপ্তাহ ধরে মায়ানমারের সেনারা অস্থায়ী ক্যাম্পের কাছে কাঁটাতারের বেড়া ঘিরে পাহাড়া বাড়িয়েছে। তারা লাউডস্পিকারে রোহিঙ্গাদের চলে যাওয়ার নির্দেশ দিচ্ছে। কমিউনিটির নেতা দিল মোহাম্মদ জানান, এতে রোহিঙ্গাদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

বিজিবির এক কর্মকর্তা জানান, মায়ানমার সেনারা দিনে ১০ থেকে ১৫ বার লাউডস্পিকারে এই ঘোষণা প্রচার করছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সীমান্তের ওপারে মায়ানমারের অতিরিক্ত সৈন্য সমাবেশ ও সীমান্তজুড়ে নতুন করে বাংকার খনন করার ঘটনায় শূন্যরেখায় আশ্রিত রোহিঙ্গা ও স্থানীয় গ্রামবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 150 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ