বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ব্যাগসহ টেনে নিয়ে গেল ছিনতাইকারী!

Print

চট্টগ্রাম নগরীতে পুলিশের সামনেই ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রী। এসময় পুলিশ নিরব ভূমিকা পালন করে। এমনকি ওই ছাত্রীর কোন মামলাও নেয়া হয়নি। ছিনতাইকারীরা ওই ছাত্রীকে টেনে হিঁচড়ে রাস্তায় ফেলে দেয়। এসময় ব্যাগসহ ওই ছাত্রীকে ২৫ থেকে ৩০ গজ টেনে নিয়ে যায়। চট্টগ্রাম নগরীর বহদ্দারহাটে এমন ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের সানজিদা তাহসিন নামে ওই ছাত্রী বহদ্দারহাট থেকে রিকশায় করে দামপাড়া যাচ্ছিলেন। নাসিরাবাদে সানম্যার শপিংমলের সামনে পেছন থেকে আসা একটি অটোরিকশা থেকে ছিনতাইকারী সানজিদার ব্যাগ টান দেয়। এতে চলন্ত রিকশা থেকে নিচে পড়ে যান সানজিদা। সেই অবস্থায় ছিনতাইকারীরা ব্যাগসহ তাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায় প্রায় ২৫ থেকে ৩০ গজ। একপর্যায়ে ব্যাগের হাতল ছিঁড়ে যায়। ব্যাগটি নিয়ে দ্রুত চম্পট দেয় ছিনতাইকারীদের অটোরিকশাটি।

গুরুতর আহত সানজিদার অভিযোগ, শনিবার (১ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে নগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের একজন সার্জেন্টসহ দুই পুলিশ সদস্যের সামনে। তারা ছিনতাই প্রতিরোধে কোনো ভূমিকা রাখেননি। বরং ঘটনার পর তারা বলেছেন, ছিনতাই প্রতিরোধ করা ট্রাফিক পুলিশের কাজ নয়।

শুধু তাই নয়, স্থানীয় পাঁচলাইশ থানায় মামলা দায়ের করতে গিয়েও ব্যর্থ হন সানজিদা। থানার ডেস্কে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা সাফ জানিয়ে দেন, বড় স্যার (ওসি) থানায় না থাকায় তারা মামলা নিতে পারেবন না। সানজিদা তাহসিনের বাড়ি কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায়। তিনি গোপালগঞ্জে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিষয়ের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। ঈদের ছুটিতে চট্টগ্রামে বেড়াতে আসা সানজিদা শনিবার গোপালগঞ্জে যাওয়ার জন্য বাস ধরতে দামপাড়ায় যাচ্ছিলেন বলে জানিয়েছেন।

পাঁচলাইশ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওয়ালি উদ্দিন আকবর বলেন, ‘ছোট হোক কিংবা বড় হোক— যেকোনো ঘটনা জানতে পারলেই আমরা রেসপন্স করি। এই ঘটনাটা আমরা জানতামই না। এখন যেহেতু জেনেছি, আমরা দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 240 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ