মেডিকেলের সেই অসহায় ছাত্রীর পাশে দাঁড়ালেন রাবি ছাত্রলীগ নেতা

Print

মেহেজেবেন শামসি মিম। বাড়ি জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলায়। মোহাম্মদ আলী ও শিউলি বেগমের বড় মেয়ে তিনি। ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হয়ে গ্রামের অসহায় দরিদ্র মানুষের সেবা করবেন। স্বপ্ন পূরণে সঠিক পথেই ছিলেন তিনি। কোচিং বা প্রাইভেট ছাড়াই উচ্চ মাধ্যমিকের গণ্ডি পেরেয়ে ভর্তি হয়েছিলেন বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজে। বর্তমানে সেই কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী অধ্যায়নরত আছেন তিনি।

মেয়ের ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন পূরণে বাবা মোহাম্মদ আলী নিজের সামান্য জমিটুকু বিক্রির পাশাপাশি দিনমজুরিও করেছেন। কিন্তু তিনি নিজেই ছিলেন হৃদরোগী। দরিদ্রতার কারণে ভালোমতো চিকিৎসাও জোটেনি তার ভাগ্যে। গত ১১ জুন মোহাম্মদ আলী দুনিয়া ছেড়ে পরপারে চলে যান। একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তির মৃত্যুতে মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে মিমের পরিবারে।

মিম আর তৃতীয় শ্রেণিপড়ুয়া ছোট মেয়ে মেহেরুজ্জাহান সিমিকে নিয়ে বিপাকে পড়েছেন মা শিউলি বেগম। কিভাবে সংসার চলবে আর কিভাবেই বা মেয়েদের পড়ালেখা হবে এসব চিন্তায় ভেঙে পড়েছেন তিনি।

গত ৩০ আগস্ট একটি দৈনিকে মিমকে নিয়ে ‘মাঝপথেই থেমে যাচ্ছে মেধাবী মিমের পড়ালেখা’ শীর্ষক একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি নজরে আসলে মিমের মা শিউলি বেগমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলে মিমের পড়ালেখার খরচ ব্যবস্থা করে দেওয়ার আশ্বাস দেন জয়পুরহাটের সন্তান ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাহফুজুর রহমান এহসান।

এছাড়া গত ৩১ আগস্ট সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে মিমকে নিয়ে একটি পোস্ট দেন ও মিমের পাশে দাঁড়ানোর জন্যে আহ্বান জানান ছাত্রলীগ নেতা এহসান।

এ ব্যাপারে রাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মাহফুজুর রহমান এহসান বলেন, অর্থাভাবে একজন মেধাবী শিক্ষার্থীর পড়ালেখা বন্ধ হতে বসেছে-বিষয়টি জানতে পেরে তাৎক্ষণিক মিমের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নেই। এ বিষয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ার পর জয়পুরহাটের অনেক রাজনৈতিক নেতা ও গণ্যমান্য ব্যক্তি মিমের পাশে দাঁড়াতে সহযোগিতার হাত বাড়াতে চাচ্ছেন, পড়ালেখার খরচ চালানোর আশ্বাস দিচ্ছেন।

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও বিডিসারাদিন24 ডট কম অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, রান্নার রেসিপি, ফ্যাশন-রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন- bdsaradin@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। নারীকন্ঠ এবং মত-দ্বিমত বিভাগে প্রকাশিত লেখার বিষয়, মতামত, মন্তব্য লেখকের একান্ত নিজস্ব। লেখকের মতামত, বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে  bdsaradin24.com আইনগত বা অন্য কোনো ধরণের দায় গ্রহণ করে না। ]

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 148 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ